• ঢাকা
  • শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২০, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: অক্টোবর ২২, ২০২০, ০২:৩১ এএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২২, ২০২০, ০২:৩৩ এএম

উয়েফা চ্যাম্পিন্স লিগ ২০২০-২১

দুরন্ত শাখতারের জায়ান্ট রিয়াল বধ

ক্রীড়া ডেস্ক
দুরন্ত শাখতারের জায়ান্ট রিয়াল বধ
গোল! বিপর্যস্ত রিয়ালের জালে বল জড়িয়েই উদযাপনে ছুটছেন শাখতার ফরোয়ার্ড তেতে - বেন স্পোর্টস

লা লিগায় দুর্বল প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে সদ্য পরাজয়ের পর এবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে পরাজয়ের তিক্ততা। রীতিমত যেন দুঃস্বপের মাঝে রয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। বুধবার রাতে ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে ৩-২ গোলের জয়ে জিদান শিষ্যদের পরাজয়ের জোর ধাক্কা দেয় ইউক্রেনিয়ান ক্লাব শাখতার দোমেনেৎস্ক। জিতেছে শাখতার।

মাঝমাঠ ও আক্রমণভাগ ছন্নছাড়া, বেসামাল রক্ষণভাগ। ম্যাচের প্রথমার্ধে এমন চেহারার রিয়াল মাদ্রিদকে চেপে ধরে শাখতার দোমেনেৎস্ক। বিরতির আগেই তিন গোলে পিছিয়ে পড়ে জিনেদিন জিদানের দল। দ্বিতীয়ার্ধে তারা ঘুরে দাঁড়ালেও ব্যবধান ঘোচাতে পারেনি।

২৯তম মিনিটে দারুণ এক আক্রমণে এগিয়ে যায় শাখতার। বাঁ দিক থেকে ভিক্তর কোরনিয়েনকো ডিফেন্ডার এদের মিলিতাওকে কাটিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে আরেক ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারানেকেও ফাঁকি দেন। তাকে বাধা দিতে ছুটে এসে পারেননি মার্সেলো; টোকা দিয়ে কোরিয়েনকো বল বাড়ান তেতেকে। নিচু শটে বিনা বাধায় ব্রাজিলিয়ান এই মিডফিল্ডার দলকে এগিয়ে নেন।

তৃতীয় গোলের পর শাখতার মিডফিল্ডার সলোমনের উল্লাস - বেন স্পোর্টস 

গোল হজমের ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার আগেই নিজেদের ভুলে দ্বিতীয় গোল খেয়ে বসে রিয়াল। ৩৩তম মিনিটে বাঁ দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে তেতের নেওয়া জোরালো শট ঝাঁপিয়ে থিবো কোর্তোয়া ঠেকালেও বল হাতে রাখতে পারেননি। ফিরতি বল বিপদমুক্ত করতে গিয়ে উল্টো জালে ঠেলে দেন ভারানে।

৪২তম মিনিটে রিয়ালকে হতভম্ব করে দিয়ে স্কোরলাইন ৩-০ করে শাখতার। এই গোলেও মুখ্য ভূমিকা শুরু থেকে দ্যূতি ছড়ানো তেতের। ডি-বক্সের মুখে মার্সেলোকে কোনো সুযোগ না দিয়ে ব্যাকহিলে পাশে বল বাড়ান তিনি। আর ছুটে গিয়ে বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে কোনাকুনি শটে ঠিকানা খুঁজে নেন ইসরায়েলের মিডফিল্ডার সলোমন।

দ্বিতীয়ার্ধের রিয়ালের গোল দুটি করেন লুকা মদ্রিচ ও ভিনিসিউস জুনিয়র। কোণঠাসা রিয়াল দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ঘুরে দাঁড়ায়। বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণে চাপ বাড়িয়ে ৫৪তম মিনিটে ব্যবধান কমায় তারা। প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে দূরপাল্লার বুলেট গতির শটে লক্ষ্যভেদ করেন মদ্রিচ।

পাঁচ মিনিট পর প্রতিপক্ষের ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে ব্যবধান আরও কমান ভিনিসিউস। লুকা ইয়োভিচের বদলি নেমে মাত্র ১৪ সেকেন্ডের মধ্যে প্রতিপক্ষের পা থেকে বল কেড়ে নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে নিচু শটে গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড।

খেলার শেষ মিনিটে ভালভেরদের শট প্রতিপক্ষের এক জনের পায়ে লেগে জালে জড়ালে স্বস্তির ছোঁয়া লাগে রিয়াল শিবিরে। তবে ভিএআরে ভিনিসিউস অফ সাইডের ফাঁদে ধরা পড়ায় সেটি বাতিল করা হয়।

চোট আর অসুস্থতায় শাখতারের নিয়মিত খেলোয়াড়দের অনেকে ছিলেন না দলে। একাদশের আট জনের বয়স ২৩ বা তার কম। ১৯ বছর বয়সী গোলরক্ষক ত্রুবিন ও দুই ডিফেন্ডারের অভিষেক ম্যাচ। অনভিজ্ঞ এই দল নিয়েই দিকহারা রিয়ালকে নাকাচুবানি খাওয়াল শাখতার।

এসকে