• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: অক্টোবর ২৫, ২০২০, ০৩:৪২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২৫, ২০২০, ০৩:৪২ পিএম

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট ভাগাভাগিতে বিসিবির আপত্তি

ক্রীড়া ডেস্ক
টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট ভাগাভাগিতে বিসিবির আপত্তি

মহামারি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অনেক টেস্টই স্থগিত হয়ে যাওয়ায় পরিস্থিতি সামলাতে স্থগিত হওয়া টেস্ট ম্যাচগুলোর পয়েন্ট ভাগাভাগির কথা ভাবছে আইসিসি। তবে আইসিসির পয়েন্ট ভাগাভাগির পরিকল্পনার সঙ্গে একমত নয় বিসিবি। ম্যাচ না খেলে পয়েন্ট পাওয়ার চেয়ে, খেলাটাকেই বেশি প্রাধান্য দিচ্ছে বোর্ড।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট ভাগাভাগি হলে বাংলাদেশের স্থগিত হয়ে যাওয়া ৮টি ম্যাচের পয়েন্ট ভাগ হবে।  টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের কোনো ম্যাচে না জেতা বাংলাদেশের পয়েন্ট ভাগে খুশিই হওয়ার কথা। তবে পয়েন্টের হিসেবে লাভ হলেও সেটি বিসিবির মনঃপুত হচ্ছে না।

বিসিবি ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান আকরাম খান একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, আমাদের জন্য টেস্ট খেলাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমরা ওয়ানডেতে খেলে উন্নতি করেছি। ওই হিসেবে টেস্ট আমরা অনেক কম খেলেছি। পয়েন্ট পাওয়া বা না পাওয়া অন্য ব্যাপার। কিন্তু খেলাটাই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। 

এদিকে, টাইগারদের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সর্বশেষ স্থগিত হওয়া ম্যাচ ৩টি শ্রীলঙ্কার মাটিতে হওয়ার কথা ছিল। তবে লঙ্কান সরকারের কোয়ারেন্টাইনের কঠিন শর্ত নিয়ে দুই বোর্ডের বনিবনা না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত সিরিজটি আলোর মুখ দেখেনি। যদিও পরবর্তীতে সুবিধাজনক সময়ে সিরিজ আয়োজনের সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু বিশ্ব আইসিসির নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে সিরিজের ভবিষ্যৎ হুমকির মুখে পড়বে। 

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের সহ-সভাপতি রাভিন ভিকরামারত্নে এ প্রসঙ্গে বলেন, আমি শুনেছি আইসিসি পয়েন্ট ভাগাভাগি করার পরিকল্পনা করছে। পূর্ণ পয়েন্ট পাওয়ার সুযোগ আর থাকছে না আমাদের। তবে ক্যালেন্ডার দেখার পর সময় ফাঁকা পাওয়া গেলে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজটা আবারও আয়োজনের চেষ্টা করতে পারতাম।

২০২১ সালের মার্চের মধ্যে লীগ পর্বের খেলাগুলো সমাপ্ত হওয়ার কথা। তাই এই সময়ের মধ্যে স্থগিত টেস্টগুলো সূচি পুনরায় করাও প্রায় অসম্ভব। লীগের এই কাঠামোতেও জটিলতা তৈরি হয়েছে। কারণ সব দল সমান সংখ্যক টেস্ট খেলেনি। হিসাব অনুযায়ী প্রত্যেক সিরিজের জন্য বরাদ্দ ১২০ পয়েন্ট। দুই ম্যাচের সিরিজের জন্য ম্যাচ প্রতি ৬০ আর তিন ম্যাচের ক্ষেত্রে পয়েন্ট ছিল ৪০ করে। আর ৫ টেস্টের ক্ষেত্রে ম্যাচ জয়ের জন্য ২৪ আর ড্রয়ের জন্য ছিল ১২ পয়েন্ট। এই পয়েন্ট বণ্টনের নিয়েও দেখা দিয়েছে জটিলতা। 

করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় আরেকটি বিকল্পও চিন্তা করছে আইসিসি। আর তা হলো- ২০২১ সালের মার্চের শেষ পর্যন্ত যেসব টেস্ট খেলা হবে, শুধু তার পয়েন্টই বিবেচনায় নেওয়া। মার্চ পর্যন্ত খেলা ম্যাচগুলোর উপর ভিত্তি করে আবার টেবিলের চূড়ান্ত অবস্থান নির্ধারিত করা হবে। সেক্ষেত্রে কোনো দল যতগুলো ম্যাচ খেলে জিতবে, তার পয়েন্টের শতাংশ হিসাব করেই অবস্থান চূড়ান্ত করা হবে। 

পূর্বের সূচি অনুযায়ী আগামী বছর জুনে এ টুর্নামেন্টের ফাইনাল আয়োজনের জন্যই এ পথে এগোচ্ছে আয়োজকরা। এ বিষয়ে তাই দ্রুতই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতে পারে। আগামী মাসে আইসিসির পরবর্তী কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে। 

এসইউ