• ঢাকা
  • সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: নভেম্বর ২১, ২০২০, ১০:২৫ এএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ২১, ২০২০, ০৫:০৯ পিএম

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ 

খুলনা-বরিশাল-ঢাকা-রাজশাহীর ক্রিকেটাররা করোনা নেগেটিভ

ক্রীড়া ডেস্ক
খুলনা-বরিশাল-ঢাকা-রাজশাহীর ক্রিকেটাররা করোনা নেগেটিভ
করোনা টেস্ট করানোর আগে ক্রিকেটারদের অপেক্ষা। ফটো: বিসিবি

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে অংশগ্রহণকারী খুলনা ও বরিশালের খেলোয়াড়, কর্মকর্তা ও কোচিং স্টাফদের করোনা টেস্টের রেজাল্ট নেগেটিভ এসেছে। গণমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন খুলনা ও বরিশালের মিডিয়া বিভাগের কর্মকর্তারা। এছাড়াও বেক্সিমকো ঢাকা ও রাজশাহীর সকলের করোনা টেস্টের রেজাল্ট নেগেটিভ এসেছে। 

দলের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাই করোনা নেগেটিভ হওয়ায় স্বস্তি নিয়ে মাঠে ফিরতে পারছে ঢাকা, বরিশাল, খুলনা এবং রাজশাহী। তবে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের ক্রিকেটার মাহমুদুল হাসান জয় এবং একজন টিম বয় করোনা পজিটিভ হয়েছেন।

গত শুক্রবার সকালে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের একাডেমিতে সব দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের করোনা টেস্ট করানো হয়। আজ থেকে টুর্নামেন্টের জন্য দলগুলো অনুশীলন শুরু করেছে। নেগেটিভ হওয়া ক্রিকেটাররা গতকাল থেকে হোটেলে ওঠা শুরু করেছেন। সোনারগাঁও হোটেলে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের পাঁচ দলের জন্য আলাদা এলাকা নির্দিষ্ট করে দেয়া হয়েছে।

কয়েকদিন আগে প্রেসিডেন্টস কাপের সময় বায়ু সুরক্ষা বলয়ের ব্যবস্থা করেছিল বিসিবি। এবার বায়ু সুরক্ষা বলয়ের পরিধি আরও বাড়ছে। ক্রিকেটারদের সঙ্গে গত শুক্রবার গামিনি ডি সিলভাসহ সংশ্নিষ্ট কিউরেটরদের এবং ৩৮ গ্রাউন্ডসম্যানেরও কোভিড-১৯ টেস্ট করা হয়েছে। 

বিসিবির একটি সূত্রে জানা গেছে, ড্রেসিং রুমসহ নানা জায়গায় খেলোয়াড়দের কাছাকাছি যাবেন- এমন ১০ থেকে ১২ পরিচ্ছন্নতাকর্মীরও (ক্লিনার) টেস্ট করা হবে। শের-ই-বাংলা স্টেডিয়াম সংলগ্ন বিসিবির স্টাফ কোয়ার্টারে তাদের জন্য আলাদা থাকার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। আর যারা টুর্নামেন্টের বিভিন্ন কার্যক্রমে থাকবেন, কিন্তু খেলোয়াড়দের কাছাকাছি যাওয়ার প্রয়োজন নেই, তাদের জন্য ক্রীড়াপল্লিতে আবাসনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। টুর্নামেন্টের মাঝপথে কেউ আক্রান্ত হলে তাদের আইসোলেশনের জন্যও ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। খেলোয়াড়রা আক্রান্ত হলে একাডেমি ভবনে এবং অন্যরা আক্রান্ত হলে ক্রীড়াপল্লী বা জাতীয় সুইমিংপুলের হোস্টেলে রাখা হতে পারে।

ইতোমধ্যে সারাবিশ্বের মতো দেশেও করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। বিসিবি তাই বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করেছে। দেশের ক্রিকেট বোর্ড কোনো রকম ঝুঁকি নিতে চাইছে না। 

পাকিস্তান সুপার লীগ (পিএসএল) শেষে দেশে ফিরে বিশেষ ব্যবস্থায় করোনা পরীক্ষা করিয়েছেন জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। তার পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে। তবে পাকিস্তান থেকে ফিরেছেন বলে নিয়ম মেনে তিনি বাসায় আইসোলেশনে আছেন। 

এসইউ