• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭
প্রকাশিত: নভেম্বর ৩০, ২০২০, ১০:৫০ এএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ৩০, ২০২০, ১০:৫০ এএম

ম্যারাডোনার চিকিৎসকের বাড়িতে পুলিশের তল্লাশি

ক্রীড়া ডেস্ক
ম্যারাডোনার চিকিৎসকের বাড়িতে পুলিশের তল্লাশি
জার্মানির বার্লিনের একটি দেয়ালে ডিয়েগো ম্যারাডোনার ম্যুরালের সামনে দিয়ে এক দর্শনার্থী হেঁটে যাচ্ছেন। জার্মান ভাষায় ম্যুরালের পাশে লেখা আছে- ‘ঈশ্বর মারা গেছে।’ ফটো: গেটি ইমেজ

সদ্যপ্রয়াত ফুটবল কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনার ব্যক্তিগত ডাক্তার লিওপোলদো লুকের বাড়ি এবং প্রাইভেট ক্লিনিকে তল্লাশি চালিয়েছে আর্জেন্টিনার স্থানীয় পুলিশ।ম্যারাডোনার চিকিৎসায় কোনো অবহেলা হয়েছিল কি না পুলিশ তা বের করার চেষ্টা করছে। ম্যারাডোনাকে কি ওষুধ দেয়া হচ্ছিল- সেটি তার দুই মেয়ে জানতে চেয়েছিলেন বলে খবর পাওয়া গেছে।  

গত বুধবার ডিয়েগো ম্যারাডোনা আর্জেন্টিনার রাজধানী  আইরেসের কাছে তার নিজ বাড়িতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৬০। ম্যারাডোনার মৃত্যুর পর থেকেই স্বস্তি পাচ্ছেন না তার ঘনিষ্ঠজনরা। তাদের দাবি, আর্জেন্টাইন ফুটবল ঈশ্বরের মৃত্যুতে চিকিৎসকদের গাফিলতি ছিল। 

প্রথমে এ নিয়ে অভিযোগ করেন, ম্যারাডোনার আইনজীবী মাতিয়াস মোরলা। তিনি দাবি করেছেন, ম্যারাডোনার জন্য জরুরি অ্যাম্বুলেন্স চাওয়া হলেও সেটি আধা ঘণ্টার মতো দেরি করে এসেছিল। তবে প্রাথমিকভাবে পাওয়া অটোপসি রিপোর্টে বলা হয়েছে, ম্যারাডোনার মৃত্যু হয়েছিল ঘুমের মধ্যেই।

এদিকে বিচার বিভাগের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, ‘বিষয়টির তদন্ত শুরু হয়েছে। এর কারণ হচ্ছে তিনি এমন একজন, যার মৃত্যু হয়েছে বাড়িতে এবং কেউ তার মৃত্যু সনদে সই করেনি। তবে এর মানে এই নয় যে, এখানে কোনও সন্দেহ বা অনিয়ম রয়েছে।’

ম্যারাডোনার মৃত্যুর তদন্তে নামা তিন প্রসিকিউটর সব কিছু খুঁটিয়েই দেখছেন। তারা ম্যারাডোনার টক্সিকোলজিক্যাল রিপোর্টের অপেক্ষায় আছেন। এছাড়া প্রতিবেশীদের সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে দেখারও অনুরোধ করেছেন।

প্রসিকিউটর অফিসের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বুয়েন্স আয়ার্সের সান ইসিদ্রোর প্রসিকিউটররা এই অনুসন্ধানের অনুরোধ করেন এবং তাতে স্থানীয় বিচারকের স্বাক্ষর রয়েছে।
তদন্তের জন্য শনিবার ম্যারাডোনার নিকট আত্মীয়স্বজনসহ অন্যদের বক্তব্য গ্রহণ করা হয়। এর ভিত্তিতেই চিকিৎসক লিওপোলদো লুকের বাসা ও ক্লিনিকে অনুসন্ধান চালানো জরুরি বলে মনে হয়েছিল।

এসইউ