• ঢাকা
  • রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২০, ২০২১, ১১:১৬ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২০, ২০২১, ০৭:২০ পিএম

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ

প্রথম ওয়ানডেতে ৬ উইকেটে জিতল টাইগাররা

প্রথম ওয়ানডেতে ৬ উইকেটে জিতল টাইগাররা

করোনাকালে জয় দিয়ে শুরু হলো বাংলাদেশ দলের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা। মিরপুর ক্রিকেট স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে হারাল তারা ৬ উইকেটে। 

সফরকারীদের দেয়া ১২৩ রানের টার্গেটে পৌঁছে যায় টাইগাররা ৩৩ ওভার ৫ বলে। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেছেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল।  ৭টি চার মেরেও এ রান করতে তার বল লেগেছে ৬৯টি। এদিন বাংলাদেশ অধিনায়ক একাই ধীরগতিতে ব্যাট করেননি। টার্গেট বড় নয় দেখে ধীরে সুস্থে ব্যাট চালিয়েছেন সবাই।  তবে তারপরও ৪ উইকেট হারাতে হয়েছে টাইগারদের। বল হাতে চার উইকেট নেয়া সাকিব ব্যাট হাতে ভালই করছিলেন। কিন্তু ১৯ রানে তিনি বোল্ড হন আকিল হোসেনের বলে। তবে মুশফিকুর রহিম-মাহমুদউল্লাহ জুটি জয় নিশ্চিত করে টাইগারদের। মুশফিকুর ১৯ ও রিয়াদ ৯ রানে অপরাজিতই থেকে যান।

এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ১২২ রানে অলআউট হয় ৩২ ওভার দুই বলে। কুয়াশাচ্ছন্ন দিনে মনে হচ্ছিল ব্যাট হাতে ভালই করবে নবীন ক্যারিবীয় দল। প্রথম ওভারে সুনিল আম্রিসের বিশাল ছয় সেটাই যেন বলছিল। কিন্ত ৭ রান করে মোস্তাফিজুর রহমানের বলে আউট হন তিনি। দলের ১৫ রান ওঠার পর বৃষ্টির কারণে খেলা অবশ্য কিছুক্ষণ বন্ধ ছিল। নতুন করে শুরু হতেই আবারও উইকেট তুলে নেন মোস্তাফিজ। এবার ৯ রানে আউট হন জশুয়া ডা সিলভা। এরপর যতবারই ওয়েস্ট ইন্ডিজ মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছে ততবারই কোনও না কোন বাংলাদেশী বোলার উইকেট নিয়েছেন। তবে ওয়েস্ট  ইন্ডিজ দলের মিডলঅর্ডারে ধসটা নামান মূলত সাকিব আল হাসান। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচেই নেন ৪ উইকেট। তাও ৭ ওভার দু্ই বল করে মাত্র ৮ রান দিয়ে। এটি সাকিবের তৃতীয় সেরা বোলিং পারফরমেন্স। সর্বোচ্চ ৪০ রান করা কাইল মেয়ার্সের উইকেটটি  অবশ্য পান মেহেদী হাসান মিরাজ। আর শেষের দিকে পরপর দুই বলে দুই উইকেট তুলে নেয়া হাসান মাহমুদ হ্যাটট্রিক চান্স মিস করলেও উইকেট পান তিনটি। 

এদিনই অভিষেকে হয়েছে পেসার হাসান মাহমুদের। ক্যারিবীয় দলে এদিন অভিষেক হয়েছে ছয় খেলোয়াড়ের।