• ঢাকা
  • শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১, ০৮:৫৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১, ০৯:৪২ পিএম

দেড় দিনেই ইংল্যান্ডকে ধরাশায়ী ভারতের

দেড় দিনেই ইংল্যান্ডকে ধরাশায়ী ভারতের

দেড় দিনেই শেষ আহমেদাবাদ টেস্ট। ইংল্যান্ডকে ১০ উইকেটে হারিয়েছে ভারত।

প্রথম ইনিংসে ১১২ রানে আলআউট হওয়া ইংল্যান্ড ভারতকে গুটিয়ে দেয় ১৪৫ রানে। সফরকারীদের অবস্থা দ্বিতীয় ইনিংসে আরও শোচনীয় হয়। ইংল্যান্ড মাত্র ৮১ রানে অলআউট হয়ে যায় ।

ম্যাচ জয়ের জন্য ভারতের প্রয়োজন হয় ৪৯ রান। ভারত গোলাপী বলের এই টেস্টে ১০ উইকেটে জয় লাভ করে।

রোহিত শর্মা ও শুবমান গিল ৭.৪ ওভারেই ছুঁয়ে ফেলেন ৪৯ রানের লক্ষ্য। মাত্র দেড় দিনেই তৃতীয় টেস্ট জিতে চার ম্যাচের সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে ভারত।

২৫ বলে ২৫ রান করেন রোহিত। আর ২১ বলে ১৫ রান করেন আরেক ওপেনার শুভমান গিল। দুজনেই অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন। স্পিনারদের রাজত্বে দেড় দিনে পাঁচ সেশন শেষ হওয়ার আগেই সমাপ্ত হয়ে যায় দিবারাত্রির এই টেস্ট।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গতকাল বুধবার শুরু হয় ম্যাচটি। জো রুটকে মিড উইকেট দিয়ে ছক্কা মেরে রোহিত শর্মা দলকে জয় এনে দিয়ে নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামের যাত্রাকে ঐতিহাসিক করে রাখেন।

ইংল্যান্ড ৩৩ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং করতে নামে । অক্ষর প্যাটেল-রবিচন্দ্রন অশ্বিনের ঘুর্ণিতে মাত্র ৮১ রানে অলআউট হয়ে যায় সফরকারীরা। স্বাগতিকদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৪৯। যা তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়েছেন রোহিত-শুভমান।

ভারতের অবিস্মরণীয় জয়ের নায়ক অক্ষর প্যাটেল। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের ৪০০ উইকেটের মাইলফলক ছোঁয়ার ম্যাচে রেকর্ড গড়েছেন এই ২৭ বছর বয়সী স্পিনার। প্রথমবারের মতো এক টেস্টে ১০ উইকেট পাওয়া অক্ষর পুরো ম্যাচে ৭০ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন ১১ (৬+৫) উইকেট, যা দিনরাতের টেস্টে এখন পর্যন্ত সেরা বোলিং ফিগার।

মাত্র দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নেমে এই কীর্তি গড়েছেন অক্ষর। চলতি মাসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চেন্নাই টেস্টে অভিষেক হয় তার। নিজের প্রথম টেস্ট খেলতে নেমেই ৭ উইকেট নিয়ে ভারতকে সিরিজে সমতায় ফেরাতে সাহায্য করেন তিনি। তার মধ্যে প্রথম ইনিংসে ২ উইকেট নেওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসেই ৫ উইকেট নেওয়ার আরেক কীর্তি গড়েন অক্ষর।

ক্যারিয়ারে প্রথমবার ৫ উইকেট পেলেন রুট। এর আগে গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। ৬.২ ওভারে ৮ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন এ অফস্পিনার। দ্বিতীয় দিনে দুই দলের ১৭ উইকেট পড়ে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ১১২

ভারত ১ম ইনিংস: ৫৩.২ ওভারে ১৪৫ (আগের দিন ৯৯/৩) (রোহিত ৬৬, রাহানে ৭, পান্ত ১, অশ্বিন ১৭, সুন্দর ০, আকসার ০, ইশান্ত ১০*, বুমরাহ ১; অ্যান্ডারসন ১৩-৮-২০-০, ব্রড ৬-১-১৬-০, আর্চার ৫-২-২৪-১, লিচ ২০-১-৫৪-৪, স্টোকস ৩-০-১৯-০, রুট ৬.২-৩-৮-৫)।


ইংল্যান্ড ২য় ইনিংস: ৩০.৪ ওভারে ৮১ (ক্রলি ০, সিবলি ৭, বেয়ারস্টো ০, রুট ১৯, স্টোকস ২৫, পোপ ১২, ফোকস ৮, আর্চার ০, লিচ ৯, ব্রড ১*, অ্যান্ডারসন ০; আকসার ১৫-০-৩২-৫, অশ্বিন ১৫-৩-৪৮-৪, সুন্দর ০.৪-০-১-১)।

ভারত ২য় ইনিংস: (লক্ষ্য ৪৯) ৭.৪ ওভারে ৪৯/০ (রোহিত ২৫*, গিল ১৫*; লিচ ৪-১-১৫-০, রুট ৩.৪-০-২৫-০)।

ফল: ভারত ১০ উইকেটে জয়ী