• ঢাকা
  • রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১, ০৫:৩১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১, ০৫:৩১ পিএম

গোলাপি বলের ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন

গোলাপি বলের ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন

গোলাপি বলের দৃশ্যমানতা কম এবং লাল বলের তুলনায় অনেক বেশি পিছলে যায়। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এক সদস্য সংবাদ মাধ্যমে এমনটাই বলেছেন। আহমেদাবাদ টেস্টের পর গোলাপি বলের এই সমস্যার কথা শোনা গিয়েছিল রোহিত শর্মা এবং অক্ষর প্যাটেলের মুখেও। তাই গোলাপি বলের টেস্ট ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্নে উঠেছে।-খবর আনন্দবাজার

আহমেদাবাদ টেস্টে ৩০ উইকেটের মধ্যে ২৮টিই পেয়েছেন স্পিনাররা। বেশিরভাগ আউটই হয়েছে সোজা বলে, যা পিচে পড়ে পিছলে গিয়েছে। এতেই আপত্তি ভারতীয় ক্রিকেটারদের। পাশাপাশি গোলাপি বলের দৃশ্যমানতা নিয়েও সমস্যা রয়েছে তাদের। অভিযোগগুলি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে বলে জানায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

ভারতীয় বোর্ডের এক সদস্য সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, “গোলাপি বলের পিছলতা লাল বলের চেয়ে বেশি। ব্যাটসম্যানদের মাথায় আগে থেকেই থাকে যে, পিচে পড়ার পর কত দ্রুত বল ব্যাটে আসবে। কিন্তু গোলাপি বলের ক্ষেত্রে সেই হিসেব খাটে না। কারণ বল অনেক দ্রুত ব্যাটে আসে। এটা সব থেকে বড় কারণ।”

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভারতীয় ক্রিকেটার বলেছেন, “আহমেদাবাদে আমরা যদি লাল বলে খেলতাম তাহলে ম্যাচ অবশ্যই চারদিনে গড়াত। এই পিচে স্পিনারদের জয়জয়কার ছিল। পিচের চরিত্র আগেই বুঝে নিয়ে তিন স্পিনার খেলিয়েছিল ভারত। ইংল্যান্ড শুধু জ্যাক লিচকে খেলিয়েছিল। অপরদিকে দেখা যায় বল হাতে পারটাইম বোলার জো রুট প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিয়ে টপকে যান লিচকে।”

বৃহস্পতিবার রাতে দেড় দিনেই শেষ আহমেদাবাদ টেস্ট। ইংল্যান্ডকে ১০ উইকেটে হারিয়েছে ভারত। প্রথম ইনিংসে ১১২ রানে আলআউট হওয়া ইংল্যান্ড ভারতকে গুটিয়ে দেয় ১৪৫ রানে। সফরকারীদের অবস্থা দ্বিতীয় ইনিংসে আরও শোচনীয় হয়। ইংল্যান্ড মাত্র ৮১ রানে অলআউট হয়ে যায় । ম্যাচ জয়ের জন্য ভারতের প্রয়োজন হয় ৪৯ রান। ভারত গোলাপি বলের এই টেস্টে ১০ উইকেটে জয় লাভ করে। রোহিত শর্মা ও শুবমান গিল ৭.৪ ওভারেই ছুঁয়ে ফেলেন ৪৯ রানের লক্ষ্য। মাত্র দেড় দিনেই তৃতীয় টেস্ট জিতে চার ম্যাচের সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে ভারত।