• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: মে ১১, ২০২১, ০৪:১২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১১, ২০২১, ০৪:২০ পিএম

প্রবাসে ঈদের স্বাদ দেশেই পাচ্ছেন মোস্তাফিজ 

প্রবাসে ঈদের স্বাদ দেশেই পাচ্ছেন মোস্তাফিজ 

ভারতীয় প্রিমিয়ার লিগ সময়মতো চললে চলতি বছরের ঈদুল ফিতর দেশের বাইরেই সস্ত্রীক উদযাপন করতে হতো কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানকে। কিন্তু মহামারি করোনার কারণে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হওয়ায় ঈদের বেশ আগেই দেশে ফিরতে হয়েছে এই দম্পতিকে। তবে কোয়ারেন্টিন শিথিল কিংবা বাসায় থাকার অনুমতি না পাওয়ায় দেশে বসেই পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে কাটাতে হবে ঈদ। 

সারা দেশেই চলছে ঈদের  আমেজ। লকডাউন কিংবা কঠোর বিধিনিষেধ মাথায় নিয়েও গন্তব্যে ছুটছেন অনেকেই। শ্রীলঙ্কা সিরিজ শেষ করে ফেরা বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা বিমানবন্দরে নেমে হোম কোয়ারেন্টিন নাকি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে যাবেন, সেই সমস্যার সমাধান আগেই করে রেখেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। তাদের সবাকেই দেওয়া হয়েছে হোম কোয়ারেন্টিনের সুবিধা। 

কিন্তু ভারতের সঙ্গে মহামারিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ ছিল। ফলে রাজস্থান রয়্যালসের মোস্তাফিজ দম্পতির সঙ্গে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলা বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে অপেক্ষা করতে হয়েছে ভাড়া বিমানের জন্য। তিনজন একসঙ্গে এসেছেন, তিনজনকেই থাকতে হচ্ছে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে।

ক্রিকেটভিত্তিক গণমাধ্যম বিডিক্রিকটাইমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মোস্তাফিজ বলেন, “নামাজ পড়ি, টিভি দেখি আর হালকা ব্যায়াম করি। আর কী করব? এভাবে থাকা অনেক কঠিন। মন তো খারাপ হবেই! কষ্টও লাগবে।” 

নিউজিল্যান্ড সফর শেষে সোজা রাজস্থান রয়্যালসে যোগদানের জন্য রওনা হয়েছিলেন মোস্তাফিজ। সেখানে গিয়ে কোয়ারেন্টিন শেষে আবারও ভেন্যু। এরপর দেশে এসেও আবার প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা সস্ত্রীক মোস্তাফিজ নিজের পরিবারকে নিয়মের বেড়াজালে কাছে পাচ্ছেন না।