• ঢাকা
  • সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: অক্টোবর ২৪, ২০২০, ০৬:৩৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২৪, ২০২০, ০৬:৩৮ পিএম

কুয়াকাটা সৈকতে পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড়

জি এম শান্ত,  বরিশাল সংবাদদাতা
কুয়াকাটা সৈকতে পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড়

বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। বুধবার থেকে শুরু হওয়া ঝড়ো আবহাওয়ার মধ্যেও সৈকতে উম্মাদনায় মেতে উঠেছে হাজার হাজার পর্যটক।

আবাসিক হোটেলগুলোর বেশিরভাগ রুমই বুকিং রয়েছে। ঝড়ো আবহাওয়ায় হাজারো পর্যটকের আগমন ঘটবে এমনটা আশা করেননি আবাসিক হোটেল-মোটেল কর্তৃপক্ষ।

আগত পর্যটকদের সমুদ্রে গোসল ছুটোছুটি ও উম্মাদনায় মেতে ওঠে কুয়াকাটা সৈকত এলাকা। এদিকে ঝড়ো আবওহাওয়ার মধ্যে উত্তাল সমুদ্রে পর্যটকদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় সমুদ্রে গোসল না করতে ট্যুরিস্ট পুলিশ মাইকিং করে নিষেধ করলেও মানছেন না পর্যটকরা।

ঢাকা থেকে আগত পর্যটক দম্পতি হ্নদয় বলেন, আগে থেকেই কুয়াকাটা ভ্রমণের জন্য সকল প্রস্ততি নেয়া ছিল। বৃহস্পতিবার তারা কুয়াকাটা সৈকতে এসেছেন। এসেই বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে পরেছেন। এমন আবহাওয়ার মধ্যে তারা আর কখনও ভ্রমণে বের হননি। তবে সমুদ্রের রুদ্র মূর্তি, উত্তাল ঢেউ দেখে ভয়ের চেয়ে ভালোই লেগেছে তাদের। হ্নদয় আরও বলেন, বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে কুয়াকাটা না এলে এমন ভ্রমণের অভিজ্ঞতা থেকে বঞ্চিত থাকতাম।

আবাসিক হোটেল সৈকত এর জেনারেল ম্যানেজার আবজাল গাজী বলেন, গত দুইদিন পর্যন্ত তাদের হোটেলের বেশির ভাগ রুমই বুকিং রয়েছে। ঝড়ের মধ্যে হাজার হাজার পর্যটক সৈকতে এসেছে। এমনটা তারা আশা করেননি। প্রথম শ্রেণির আবাসিক হোটেল ওশান ভিউ’র ব্যবস্থাপক আশ্রাফুজ্জামান রনি একই অভিমত ব্যক্ত করেন।

কুয়াকাটা ট্যুরিস্ট পুলিশ জোনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান জানান, ঝড়ো আবহাওয়ার মধ্যে আগত শত শত পর্যটক সমুদ্রে গোসল করতে নামছে। নিরাপত্তার স্বার্থে জোয়ারের সময় সমুদ্রে গোসল কিংবা ওয়াটার বাইক রাইডিং থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। এজন্য মাইকিং করাসহ দ্বারে দ্বারে গিয়ে নিষেধ করা হচ্ছে।

জাগরণ/এমইউ