• ঢাকা
  • সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: মার্চ ৮, ২০২০, ০৮:৪৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ৮, ২০২০, ০৯:০৬ পিএম

‘বর্তমান প্রজন্মের কাছে নারী অধিকার উন্মোচিত হোক’

জবি সংবাদদাতা
‘বর্তমান প্রজন্মের কাছে নারী অধিকার উন্মোচিত হোক’
নারী দিবসের অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া জবির শিক্ষার্থীরা ● জাগরণ

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগে নানা কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

রোববার (৮ মার্চ) সমাজবিজ্ঞান বিভাগের উদ্যোগে ক্যাম্পাসে শোভাযাত্রা, পোস্টার প্রদর্শনী ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

বিভাগের চেয়ারম্যান সহযোগী অধ্যাপক শিপ্রা সরকারের নেতৃত্বে সকালে শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি পুরো ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে বিভাগের সামনে এসে শেষ হয়। এ সময় শিক্ষার্থীদের হাতে নারী দিবস, নারী অধিকার সম্বলিত বিভিন্ন স্লোগান লিখিত প্ল্যাকার্ড দেখা যায়।

পরে  বিভাগের শিক্ষক সহযোগী অধ্যাপক ড. ফারহানা জামান ও সহকারী অধ্যাপক শাহনাজ সরকারের তত্ত্বাবধানে পোস্টার প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। প্রদর্শনীতে সমাজে নারী সমতা সৃষ্টি, বৈষম্য হ্রাস, নারীর ক্ষমতায়ন, বাল্যবিয়ে বন্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি, নারীর সুরক্ষা নিশ্চিত করা ও সকল ধরণের সহিংসতা বন্ধে  বিভিন্ন পোষ্টার প্রদর্শিত হয়। এতে বিভাগের ১০টি দল অংশগ্রহণ করে।

প্রদর্শনীতে ১ম স্থান অর্জন করেছেন দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীরা ২য় ও ৩য় স্থান অর্জন করেছেন প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীরা।

পরে বিভাগের হল রুমে ‘রাজনৈতিক অঙ্গিকারের চেয়েও শিক্ষার অগ্রগতি নারীর অগ্রযাত্রায় মূখ্য ভূমিকা রাখে’ শীর্ষক বিতর্ক প্রতিযেগিতার আয়োজন করা হয়। এতে বিজয়ী হয়েছেন ২য় বর্ষের শিক্ষার্থীরা আর রানার্সআপ হয়েছেন ১ম বর্ষের শিক্ষার্থীরা। শ্রেষ্ঠ বক্তা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন মুতাসিম বিল্লাহ মাসুম।

বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শাহনাজ সরকার ও প্রভাষক শিরিন সুলতানা এবং প্রধান সঞ্চালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন সহযোগী অধ্যাপক ড. ফারহানা জামান।

অনুষ্ঠানের তত্ত্বাবধায়ক ড. ফারহানা জামান বলেন, এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে নারীদের সমসাময়িক অবস্থার চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করেছি এবং বিভিন্ন সৃজনশীল পোস্টারের মধ্য দিয়ে নারী নিপীড়নের নানাবিধ চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। আমি চাই বর্তমান প্রজন্মের সামনে নারী সচেতনতা, নারী অধিকার আদায়ের বিষয়টি উন্মোচিত হোক।

এমএইচবি/এসএমএম