• ঢাকা
  • রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: জুলাই ১০, ২০১৯, ০৯:২৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ১০, ২০১৯, ০৯:২৯ পিএম

ডিসি সম্মেলন নিয়ে বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে সংবাদ সম্মেলন

জাগরণ প্রতিবেদক
ডিসি সম্মেলন নিয়ে বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে সংবাদ সম্মেলন

জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনকে সামনে রেখে এর কার্যসূচি পাঠানো হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর দফতরে। 

বুধবার (১০ জুলাই) সকালে প্রধানমন্ত্রীর দফতরে পাঠায় কার্যসূচি পাঠায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ আগামী ১৪ জুলাই (রোববার) ঢাকায় শুরু হবে ৫ দিনের জেলা প্রশাসক সম্মেলন।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) দুপুরে সচিবালয়ে এ নিয়ে সংবাদ সম্মেলন আহবান করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। সংবাদ সম্মেলনে ডিসি সম্মেলনের বিষয়ে বিস্তারিত অবহিত করবেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্র জানায়, রোববার (১৪ জুলাই) সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার কার্যালয়ের ‘শাপলা’ হলে এই সম্মেলন উদ্বোধন করবেন। এ সম্মেলনের বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নেয়া সিদ্ধান্ত ও কার্যসূচি বুধবার সকালে পাঠানো হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে। প্রধানমন্ত্রী অনুমোদনের পর সম্মেলনের অন্যান্য আনুষঙ্গিক কার্যক্রম শুরু করবে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

এবারই প্রথম ডিসি সম্মেলন হচ্ছে ৫ দিনের। এবারও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সম্মেলন উদ্বোধনের পর মুক্ত আলোচনায় মাঠ প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ জনস্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে শুনবেন ও নির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী। সম্মেলনে বঙ্গভবনের দরবার হলে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও দিক-নির্দেশনা গ্রহণ করবেন ডিসিরা। ডিসি সম্মেলন চলাকালে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় বা বিভাগের মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সিনিয়র সচিব, সচিবরা বিভিন্ন অধিবেশনে উপস্থিত থেকে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনারদের মূল্যবান উপদেশ ও দিক-নির্দেশনা দেবেন। কর্ম অধিবেশনগুলো হবে সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভাকক্ষে। কার্য অধিবেশনগুলোতে সভাপতিত্ব করবেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম।

সম্মেলনের উদ্বোধনের পর ডিসিদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মুক্ত আলোচনায় অংশ নেবেন। দ্বিতীয় দিনে টানা ছয়টি কার্য-অধিবেশনে ১৯টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের মন্ত্রী-সচিবদের সঙ্গে বৈঠক করবেন ডিসিরা। ওইদিন সন্ধ্যায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বঙ্গভবনে। তৃতীয় দিন টানা ৫টি অধিবেশনে ১২টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের মন্ত্রী-সচিবদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। এরপর বিকেলে প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সাক্ষাতের সময় নির্ধারিত আছে। চতুর্থ দিনের জন্য নির্ধারিত ৮টি কার্য অধিবেশনে ১৯টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের মন্ত্রী-সচিবদের সঙ্গে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। শেষ অর্থাৎ পঞ্চম দিনে ৪টি অধিবেশনে ৪টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের বৈঠক নির্ধারিত আছে। ওইদিন বিকেলেই জাতীয় সংসদে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সাথে সাক্ষাতের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে ডিসিদের সম্মেলনের আনুষ্ঠানিকতা।

দুইদিন সময় বাড়ার বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সূত্র জানায়, প্রতিবছর ৩ দিনের সম্মেলনে ২৫ থেকে ৩০টি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। অল্পসময়ে এত বৈঠক নিয়ে ডিসিদের আপত্তি ছিলো। বিষয়টি আমলে নিয়ে এবার ৫ দিনের সম্মেলনের পরিকল্পনা সাজিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

এমএএম/এসএমএম

আরও পড়ুন

Islami Bank
ASUS GLOBAL BRAND