• ঢাকা
  • সোমবার, ২০ মে, ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
প্রকাশিত: জুলাই ৩১, ২০২৩, ১২:৪৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ৩১, ২০২৩, ১২:৪৯ এএম

‘আপ্যায়ন করে ভিডিও ছড়ানো ঘৃণ্য কাজ’

‘আপ্যায়ন করে ভিডিও ছড়ানো ঘৃণ্য কাজ’
ছবি ● সংগৃহীত

ডিবি কার্যালয়ে আপ্যায়নের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ‘আপ্যায়ন করে সেই ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনা অত্যন্ত ন্যক্কারজনক ও ঘৃণ্য কর্মকাণ্ড। এটি অত্যন্ত নিম্ন রুচির পরিচায়ক। এটি এক ধরনের তামাশাপূর্ণ নাটক।’

তিনি বলেন, ‘‘সরকার প্রমাণ করতে চায় যে, আমরা হা-ভাতে? ভিক্ষা করে খাই? গ্রামের ভাষায় বলা হয় ‘খাইয়ে খোঁটা দেয়া’।

ডিবি অফিসে আমার সঙ্গে যা করা হলো, তা ওই রকমই। আমার বাড়িতে তো বিভিন্ন সময় অনেক লোক খায়। এটা আমার জন্য অত্যন্ত সম্মানের। কিন্তু এই খাবারের ছবি উঠিয়ে কি আমি ছড়িয়ে দেব? এটা কি আমার জন্য ভালো হবে?’’

রাজধানীর নয়াপল্টনে  রোববার দুপুরে ব্যক্তিগত কার্যালয়ে সাংবাদিকদের গয়েশ্বর এ কথা বলেন। 

গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কার্যালয়ে খাবার খাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ডিবির পক্ষ থেকে যে খাবারের আয়োজন করা হয়েছিল, সে খাবার খাননি। ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন অর রশীদের বাসা থেকে আনা খাবার খেয়েছেন।

শনিবার পুরান ঢাকার ধোলাইখালে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনায় গয়েশ্বর আহত হন। দুপুরের দিকে পুলিশভ্যানে করে তাকে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের প্রধান হারুন অর রশীদের সঙ্গে গয়েশ্বর খাবার খান। বিকেল ৩টার দিকে ডিবি কার্যালয় থেকে গয়েশ্বরকে নয়াপল্টনে তার ব্যক্তিগত কার্যালয়ে পৌঁছে দেয়া হয়। 

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, ডিবি কার্যালয়ে গয়েশ্বরের প্লেটে খাবার তুলে দিচ্ছেন ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন অর রশীদ।

জাগরণ/রাজনীতি/এসএসকে