• ঢাকা
  • শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১, ০২:৪২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১, ০৮:৪২ এএম

ইভ্যালির সঙ্গে নেই বললেন তাহসান-মিথিলা-ফারিয়া

ইভ্যালির সঙ্গে নেই বললেন তাহসান-মিথিলা-ফারিয়া

বিতর্কিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির শুভেচ্ছাদূত ছিলেন জনপ্রিয় গায়ক-অভিনেতা তাহসান খান। জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে ছিলেন অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল, তার স্ত্রী ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে গ্রেপ্তারের পর কথা ওঠে এই তারকাদের নিয়েও।

জানা গেছে, এই দুই তারকা এখন কেউই নেই ইভ্যালির সঙ্গে। আর ‘ফেইস অব ইভ্যালি’ (শুভেচ্ছাদূত) হয়ে কাজ করা আরেক জনপ্রিয় মডেল-অভিনেত্রী মিথিলাও নেই এর সঙ্গে। প্রতিষ্ঠানটিতে যুক্ত হওয়ার দুই মাসের মাথায় তিনিও চুক্তি বাতিল করেছেন।

এর আগে, গেল ১০ মার্চ ইভ্যালির ‘ফেইস অব ইভ্যালি’ (শুভেচ্ছাদূত) ঘোষণা করা হয় তাহসান খানকে। প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে আপাতত কোনো সম্পর্ক নেই বলে জানালেন তাহসান।

তিনি জানান, ইভ্যালির সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পর প্রতিষ্ঠানটি বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে গ্রাহকের তোপের মুখে পড়েন তিনি। সবদিক বিবেচনা করে মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে ইভ্যালি সঙ্গে যাবতীয় চুক্তি বাতিল করেছেন তিনি। এর মধ্যে গত ১৫ মে সাবেক স্ত্রী মিথিলার সঙ্গে একটি লাইভ শোতে এসেছিলেন তাহসান। সেটিই ছিল ইভ্যালির সঙ্গে তাহসানের শেষ কাজ।

তাহসান আরও জানান, চুক্তি বাতিলের নন ডিসক্লোজার শর্ত অনুযায়ী তিনি এর বেশি কিছু জানাতে চান না। তার ভাষ্য, ‘ইভ্যালির সঙ্গে তিনি নেই এটা নিশ্চিত।’

অন্যদিকে, ফারিয়া প্রতিষ্ঠানটি থেকে তিন মাসে এক টাকাও পাননি বলে অভিযোগ করেছেন। আর এ কারণেই প্রায় এক মাস আগে ইভ্যালি থেকে পদত্যাগ করেছেন তিনি।

ফারিয়া বলেন, ‘ইভ্যালির সঙ্গে অফিসিয়ালি তিন মাস কাজ করলেও কোনো বেতন পাইনি। আমি যোগদানের পর থেকেই জানতে পারি ভেতরে বেতন নিয়ে সমস্যা চলছিল। তাই তিন মাস কাজ করার পর আগস্টের শেষ চাকরি ছেড়েছি।’

উল্লেখ্য, অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেল এবং তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনকে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে আটক করেছে র‍্যাব। এর আগে, বুধবার রাতে তাদের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে গুলশান থানায় প্রতারণার মামলা দায়ের করেন একজন গ্রাহক।

জাগরণ/এমএইচ