• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৮, ২০২৪, ১২:৩৫ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২৮, ২০২৪, ১২:৩৫ এএম

ডিপফেকে শিকার টেইলর সুইফট

ডিপফেকে শিকার টেইলর সুইফট
ছবি ● সংগৃহীত

এবার ডিপফেক ছবির শিকার হয়েছেন আমেরিকার জনপ্রিয় গায়িকা টেইলর সুইফট। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা দিয়ে তৈরি তার ভুয়া ছবি এখন নেট দুনিয়ায় ভাইরাল। মোবাইল ফোন থেকে মোবাইল ফোনে ঘুরছে। এনিয়েই তোলপাড় বিশ্বের বিনোদন দুনিয়া। তবে ঘটনাটি দিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে আমেরিকা।

এক সময়ের কল্পনা হয়ে থাকা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই এখন চরম এক বাস্তবতা। এই প্রযুক্তির বিকাশ হচ্ছে অবিশ্বাস্য গতিতে। তবে এটি বাস্তবে ধরা দেওয়ার আগেই গল্প-সিনেমায় এআই- এর নেতিবাচক দিক ফুটে উঠতে দেখা যায়। সেসবই এখন সত্যি হচ্ছে। শুধু সত্যি নয়, কারও কারও জন্য দুঃস্বপ্নও বটে।

শুরু হয়ে যায় এআই প্রযুক্তির অপব্যবহার করে নর-নারীর অশালীন সব ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার কুৎসিত প্রতিযোগিতা। যার বেশিরভাগ শিকার হচ্ছেন বিনোদন জগতের তারকারা। হলিউড থেকে শুরু করে বলিউড- সবখানের জনপ্রিয় তারকাদের ডিপফেক ছবিতে সয়লাব সামাজিক মাধ্যম।

tylor1

ডিপফেক হলো, মুখ একজনের শরীর আরেক জনের। কোন পরিচিত ও জনপ্রিয় তারকার মুখ অন্য নারীর শরীরে বসিয়ে তৈরি হচ্ছে অশালীন সব ছবি ও ভিডিও। এর খপ্পর থেকে বাদ পড়েনি জনপ্রিয় তারকারাও। বাদ যাননি বিখ্যাত পপস্টার টেইলর সুইফট। বিশ্বব্যাপী সংগীতপ্রেমীদের কাছে পরিচিত একটি নাম।

সম্প্রতি তার নকল ছবি ও ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে যায়। ভক্তরা সহজেই বুঝে যায়, ডিপফেক এসব আপত্তিকর সব ফাইল টেইলর সুইফটের নয়। এনিয়ে তারা প্রতিবাদও জানান। তবে, শুধু ভক্তদের মধ্যেই নয়। এই আলোচনা গড়িয়েছে আমেরিকার হোয়াইট হাউজ পর্যন্ত।

শুক্রবার হোয়াইট হাউস এই ব্যাপারে শঙ্কা প্রকাশ করে। এক্স হ্যান্ডেলে একটি ছবি প্রায় ৪৭ মিলিয়ন ভিউ ছুঁয়েছিল। পরে সেই অ্যাকাউন্ট স্থগিত করে দেওয়া হয়। দিন দিন এই সব ব্যাপার আরও ভয়ংকর রূপ ধারণ করছে বলে জানান তারা। এসব নিয়ন্ত্রণে রাখতে যা যা করা সম্ভব সব করবে হোয়াইট হাউস।

tylor2

একটি লিখিত বিবৃতিতে হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি ক্যারিন জিন-পিয়েরে হুঁশিয়ারি করে বলেন, এটা খুবই উদ্বেগজনক। তাই আমাদের পক্ষ থেকে যা যা করা দরকার, আমরা সেটাই করতে যাচ্ছি। মাইক্রোসফট কর্তা সত্য নাদেলাও বলেছেন, এটা উদ্বেগজনক এবং ভয়ংকর। এই বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

এর আগে হলিউডের টম ক্রুজ, টম হ্যাঙ্কস, এমা ওয়াটসন, স্টিভ হার্ভিসহ অনেকেই ডিপফেক ছবির শিকার হয়েছেন। এছাড়া ভারতে ক্যাটরিনা কাইফ, রাশমিকা মান্দানাসহ বেশ কয়েকজন অভিনেত্রীর এমন ভুয়া আপত্তিকর ছবি নেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছিল। যা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন অন্যান্য তারকারাও।

প্রযুক্তির নতুন বিষফোড়া ডিপফেক। এটি এমন এক ব্যবস্থা, যেখানে মানুষের মুখ ব্যবহার করে নিখুঁতভাবে আপত্তিকর ছবি-ভিডিওতে তৈরি করা যায়। এই নেতিবাচক আক্রমণের শিকার মূলত নারী তারকারা হচ্ছেন। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলেন মার্কিন পপ সেনসেশন টেইলর সুইফট।

জাগরণ/বিদেশিবিনোদন/বিশ্বসঙ্গীত/কেএপি