• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১২ এপ্রিল, ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০
প্রকাশিত: জানুয়ারি ৩১, ২০২৪, ০১:২৭ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ৩১, ২০২৪, ০১:২৯ এএম

ত্রয়োদশ আন্তঃস্কুল বাংলা অলিম্পিয়াড ২৪ ফেব্রুয়ারি

ত্রয়োদশ আন্তঃস্কুল বাংলা অলিম্পিয়াড ২৪ ফেব্রুয়ারি
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন অধ্যক্ষ রোকসানা জারিন ● জাগরণ

ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুল বাংলাদেশের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ত্রয়োদশ আন্তঃস্কুল বাংলা অলিম্পিয়াড।

আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত স্কুল প্রাঙ্গণে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালায় প্রতিযোগীরা রচনা লেখা, আবৃত্তি, নাচ, গান, অঙ্কন, কুইজ এবং উপস্থিত বক্তৃতা বিষয়ে বয়সভেদে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে অংশ নেবে।

মঙ্গলবার দুপুর ২টায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুল বাংলাদেশের আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান হয়।

প্রতিযোগিতায় সহযোগিতা করছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট।

ভাষার মাসে এটি দেশের ইংরেজি মাধ্যম এবং ইংরেজি ভার্সন স্কুলগুলোর অংশগ্রহণে বাংলা ভাষা বিষয়ক সর্ববৃহৎ প্রতিযোগিতা। প্রতিবছরের মতো এবারও শতাধিক স্কুলের হাজারের বেশি শিক্ষার্থী এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে। জমজমাট আয়োজনের মধ্য দিয়ে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

বার্ষিক এই প্রতিযোগিতা এরই মধ্যে সাফল্যের সাথে এক যুগ অতিক্রম করেছে।

ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুল বাংলাদেশের অধ্যক্ষ রোকসানা জারিন বলেন, ‘প্রতিযোগিতার এই আয়োজন করে আমাদের স্কুল বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতিচর্চায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এরই মধ্যে বাংলা অলিম্পিয়াড ইংরেজি স্কুলগুলোর একটি জাতীয় প্রতিযোগিতায় পরিণত হয়েছে। শুধু জাতীয় নয়, আমি বলব, বাংলা অলিম্পিয়াড ছড়িয়ে পড়ছে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও।’

‘প্রতি বছরই দেশি শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি বিভিন্ন স্কুলের বিদেশি শিক্ষার্থীরাও বাংলা অলিম্পিয়াডে যোগ দিচ্ছে। এর মাধ্যমে ভাষার মাসে ভাষাশহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতিচর্চায় ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষার্থীরাও এখন অনেক অগ্রসর, বাংলা অলিম্পিয়াড এটাই প্রমাণ করে।’

বাংলা অলিম্পিয়াডের সমন্বয়ক কামরুল আহসান বলেন, ‘ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে বাংলা অলিম্পিয়াড দেশের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য অনুষ্ঠান। গত এক যুগ ধরে আয়োজিত অনুষ্ঠানটি দেশের দেশের ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষার্থীদের জীবন ও দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে দিয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে স্কুলের ডেপুটি হেড আলিশের রাহিমবারদিয়েভ, স্কুলের শিক্ষক ইমাম হোসেন, আবুল কাশেম, মামুন মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

রেজিস্ট্রেশন

বাংলা অলিম্পিয়পাডের অনলাইন রেজিস্ট্রেশন শুরু হয়েছে গত ১ জানুয়ারি। আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত স্কুলগুলো অনলাইনে Banglaolympiad.org ওয়েবসাইট থেকে শিক্ষার্থীদের জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিতি থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী। এবার বাংলা অলিম্পিয়াডের উপদেষ্টা হিসেবে আছেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর, বাংলা অলিম্পিয়াডের উপদেষ্টা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপউপাচার্য কবি ড. মুহাম্মদ সামাদ, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. হাকিম আরিফ ও শিশু একাডেমির মহাপরিচালক আনজীর লিটন।

বিচারক

প্রতিযোগিতার বিচারক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন দেশসেরা কবি-সাহিত্যিক-শিল্পী-শিক্ষাবিদবন্দ। বিশিষ্ট আবৃত্তিশিল্পী ডালিয়া আহমেদ, শিমুল মুস্তাফা, মাহিদুল ইসলাম, রূপা চক্রবর্তী, রেজিনা ওয়ালী লীনা, বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী লায়লা হাসান, বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী চন্দনা মজুমদার, কিরণচন্দ্র রায়, প্রিয়াঙ্কা গোপ, সরকারি সঙ্গীত কলেজের শিক্ষক কমল খালিদ, ইউনুসুর রহমান, নৃত্যশিল্পী সাজু আহমেদ, সামিনা হোসেন প্রিমা সহ আরও অনেকে।

জাগরণ/জাতীয়/এসএসকে