• ঢাকা
  • শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮
প্রকাশিত: অক্টোবর ২, ২০২১, ১২:১৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২, ২০২১, ০১:১৯ এএম

চারুকলা শিক্ষক নিয়োগের বয়সসীমা বর্ধিত করতে হবে : মুস্তাফা মনোয়ার

চারুকলা শিক্ষক নিয়োগের বয়সসীমা বর্ধিত করতে হবে : মুস্তাফা মনোয়ার
শিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার।

সৃষ্টিশীল ও বিশ্বমানের জাতি গঠনে শিশু কিশোরদের  চারু ও কারুকলা শিক্ষার গুরুত্ব বিবেচনায় দেশের সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আগে থেকেই চারু ও কারুকলা শিক্ষা চলমান আছে। তবে  বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এই শিক্ষার কার্যক্রম চালু হয় ২০১৩ সাল থেকে।

এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৮ সালে জারিকৃত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালায় প্রথমবারের মতো সৃষ্টি হয় চারুকলা শিক্ষক পদ। ২০১৯ সালের ৩০ মে প্রকাশিত শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি বিজ্ঞপ্তি অনুসারে, ২০২২-২৩ অর্থবছর থেকে এ পদে শিক্ষক নিয়োগ ও এমপিও দেয়া হবে। এজন্য  এমপিওভুক্ত বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রায় ২২ হাজার চারুকলা শিক্ষকের প্রয়োজন হবে।

কিন্তু চারুকলা শিক্ষক নিয়োগে ২০১৮ সালের নীতিমালা বাস্তবায়ন না করেই শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্প্রতি  এ পদে নিয়োগের সংশোধনী নীতিমালা (২০২১) প্রকাশ করে। ২০১৮ সালের নীতিমালায় চারুকলা শিক্ষক নিয়োগের ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা ছিল চারুকলায় স্নাতক ডিগ্রি। ২০২১ সালের  সংশোধনী নীতিমালায় এ পদে নিয়োগের শিক্ষাগত যোগ্যতা চারুকলায় স্নাতক ডিগ্রির পাশাপাশি  যে কোনও বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রিসহ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে মাত্র 'এক বছর মেয়াদী এডভান্সড সার্টিফিকেট ইন ফাইন আর্টস'কে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। এই সিদ্ধান্ত চারুকলা শিক্ষার সাথে সাংঘর্ষিক বলেও মত প্রকাশ করছেন অনেকে। তাছাড়া বেসরকারি মাধ্যমিক স্কুলের সর্ব প্রথম চারুকলা শিক্ষক  নিয়োগ প্রক্রিয়ায় বয়সসীমা নির্দিষ্ট  করা হয়েছে। ফলে অন্যান্য পেশা থেকে  শিক্ষকতায়  আসতে আগ্রহী চারুকলার বৃহত্তর দক্ষ ও অভিজ্ঞ  জনবল আবেদন প্রক্রিয়ায় অযোগ্য হিসেবে গণ্য  হচ্ছেন  বলেও অভিযোগ উঠেছে। এমনকি,  পূর্ব থেকেই যারা বিভিন্ন  এমপিওভুক্ত মাধ্যমিক স্কুলে শিক্ষকতা করে আসছেন, তারাও নীতিমালার শর্তে অযোগ্য হিসেবে গণ্য হবেন। এ পদে নিয়োগ  পদ্ধতি নিয়েও অভিযোগ উঠেছে।   শিক্ষা বিভাগের এরকম  সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মাধ্যমে ক্ষুব্ধ  প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছেন চারু শিল্পীদের একাধিক সংগঠন, বরেণ্য চিত্র শিল্পী, স্কুল/বিশ্ববিদ্যালয়ের সচেতন চারুকলার শিক্ষক ও প্রাক্তন/অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা। এসব বিষয় নিয়ে দৈনিক জাগরণের কথা হয় বরেণ্য শিল্পী, চারুকলা শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের। জাগরণের পক্ষে কথা বলেছেন পঙ্কজ রায়।

.............

‘যে শিল্পকলা প্রাথমিক অবস্থায় শিখতে আর্ট কলেজে ৫ বছর লাগে সেটা ১ বছরে কী করে সম্ভব?  এ শিক্ষার কতগুলো ধাপ আছে, সেই ধাপ অতিক্রম করতে কমপক্ষে ৩ বছর লাগার কথা। সুতরাং এই এক ধাপে শিল্পকলার মতো বহুমুখী শিক্ষা হয় না।’

.............

চারুকলা শিক্ষক নিয়োগে ১ বছরের চারুকলা ডিপ্লোমা অনুমোদনের বিষয়ে সব্যসাচী শিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটি উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, 'আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা অভাবের অনুচর৷ সেই অভাবের অনুচর বলেই শিল্পকলাকে হেয় করা হচ্ছে৷ এঁরা (নীতি নির্ধারক) ভাবতেই পারছেন না যে, শিল্পকলা মানুষকে কতখানি এগিয়ে নিতে পারে! যে শিল্পকলা প্রাথমিক অবস্থায় শিখতে আর্ট কলেজে ৫ বছর লাগে সেটা ১ বছরে  কী করে সম্ভব? আর এটা (শর্ট ডিপ্লোমা) করলেও কার্যকরী কিছুতেই হবে না । এর কতগুলো ধাপ আছে, সেই ধাপ অতিক্রম করতে কমপক্ষে ৩ বছর লাগার কথা। সুতরাং এই এক ধাপে শিল্পকলার মতো বহুমুখী শিক্ষা হয় না।

চারুকলা শিক্ষক নিয়োগের নীতিমালায় বয়সসীমা নির্দিষ্ট করার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শিক্ষক সংকট নিরসনে চারুকলা শিক্ষক নিয়োগের বয়সসীমা কয়েক বছরের জন্য  বর্ধিত করতে হবে। প্রথম দিকে  বয়স বর্ধিত করলে শিক্ষকের অভাব অনেক কমে যাবে। এ জন্য  ১০ বছর বৃদ্ধি করুক, শিল্পীরা বসে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। চারুকলা শিক্ষক পদে আবেদনের ক্ষেত্রে বিএড ডিগ্রি যুক্ত করার বিষয়ে তিনি বলেন, আর্টের শিক্ষায় বিএড (ব্যাচেলর অফ এডুকেশন) লাগবে না। বিএড- এ যে শিক্ষা শেখায় তার সাথে আর্টের কোনও সম্পর্ক নেই। তার প্রমাণ হলো দেশের সব আর্ট কলেজ। এখানে শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পূর্ণ আলাদা। আর্টের শিক্ষা ব্যবস্থার সাথে যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ শেখার কোনও দরকার  নেই । এই শিক্ষায়  কোনও লাভ হবে না । বরং তাদের  (আর্টের  শিক্ষার্থী)  চিন্তা শক্তি নষ্ট হতে পারে, উন্মুক্ত ভাবটা নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

নারায়ণগঞ্জ চারুকলা ইনস্টিটিউট'র অধ্যক্ষ শামসুল আলম আজাদের প্রশ্ন, 'বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রীধারী একজন ছাত্রকে কারিগরি বোর্ডের এক বছরের ডিপ্লোমা দিলে তার মান উচ্চ (অ্যাডভান্স) হয় কি ভাবে, আবার তা যদি একই সাবজেক্টে না হয়!'                 

১ বছরের চারুকলা ডিপ্লোমা বিষয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. সিদ্ধার্থ শঙ্কর তালুকদার বলেন, শিক্ষক নিয়োগে চারুকলার শর্ট ডিপ্লোমা সামগ্রিক চারুকলার ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। কারণ কেউ যখন কোনো কিছু শিখতে যায়, শুধু সৃজনশীল শিক্ষা নয়, যেকোনো শিক্ষার ক্ষেত্রে মূলত একটা টার্গেট থাকে- তাকে কিছু একটা করে জীবন ধারণ করতে হবে, চাকরি করতে হবে। সেই ক্ষেত্রে যখন অন্য বিষয়ে পড়াশোনা করে একটা ডিপ্লোমা দিয়ে কেউ যদি চারুকলা শিক্ষকের চাকরি পায়, তাহলে এখানে দীর্ঘমেয়াদী শিক্ষার তো কোনো প্রয়োজন নেই। যার ফলে শিক্ষার্থী সংখ্যা কমে যাবে, চারুকলার যে একটা দীর্ঘমেয়াদী শিক্ষার প্রয়োজন আছে সমাজে তার গুরুত্ব কমে যাবে। শেষ পর্যন্ত এই আলোচ্য শর্ট ডিপ্লোমা কোর্সের নিয়োগিক কার্যকারীতা বহাল থাকলে চারুকলার শিক্ষার্থীরা হতাশায় নিমজ্জিত হবে।

চারুকলা শিক্ষক নিয়োগে ডিপ্লোমা বাতিলের দাবি জানিয়ে তিনি আরও বলেন, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যদি এই ভুল সিদ্ধান্ত থেকে সরে না আসে তাহলে রাবি চারুকলার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সমন্বিত বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার বিকল্প থাকবে না।

ঢাবি চারুকলা অনুষদের প্রাক্তন শিক্ষার্থী, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক যূথী ফারহানা বলেন, ‘চারুকলার স্নাতক, স্নাতকোত্তর মূলত শিল্পী হওয়ার অবকাঠামো নির্মাণ করে। এতো বড় পরিসরে থেকেও সবাই কি শিল্পী, শিক্ষক হতে পারে? এমন পরিস্থিতিতে মাত্র ১ বছরের ডিপ্লোমাকে চারুকলার শিক্ষক হওয়ার জন্য যোগ্যতা মূল্যায়ন করা চারুকলার ডিগ্রীধারীদের প্রতি দুঃসাহসিক অবমূল্যায়ন৷’

.............

‘‘সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যদি এই ভুল সিদ্ধান্ত থেকে সরে না আসে তাহলে রাবি চারুকলার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সমন্বিত বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার বিকল্প থাকবে না।’’

.............

শহর ও গ্রামের  মাধ্যমিক স্কুলে  চারুকলা  শিক্ষার বৈষম্য নিরসনে বেসরকারি মাধ্যমিক স্কুলে দ্রুত চারুকলা শিক্ষক নিয়োগের দাবি জানিয়ে বিশ্ব ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থী সৈয়দ মুন্নাফ হোসেন বলেন, বাংলাদেশ বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) এর শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া দীর্ঘ মেয়াদী। তাছাড়া,  চারু ও কারুকলার শিক্ষক নিয়োগের পূর্ব অভিজ্ঞতাও নেই। এজন্য পিএসসি বা বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন থেকে অভিজ্ঞতা নিয়ে একটি বিশেষ নিয়োগ পরীক্ষা নিতে পারে। যেহেতু বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে NTRCA এর Properly trained and skilled teachers লাগবে, সেহেতু চারুকলা শিক্ষক পদে নিয়োগের বয়স শিথিল ও ন্যূনতম  শিক্ষাগত যোগ্যতা  চারুকলায় স্নাতক ডিগ্রি বহাল রাখতে হবে।'

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আর্ট কলেজের এক প্রাক্তন শিক্ষার্থী বলেন, 'আর্ট কলেজের শিক্ষার্থীদের একাডেমিক ব্যাকগ্রাউন্ড, সিলেবাস ও কারিকুলাম অনুযায়ী চারুকলা শিক্ষক নিবন্ধনের প্রথম স্তরের পরীক্ষার সিলেবাস কতটা সামঞ্জস্যপূর্ণ তা সংশ্লিষ্ট সকলের খতিয়ে দেখা জরুরী। আমার মনে হয়, আর্ট কলেজের কারিকুলাম,  সিলেবাস বিশেষ করে, তত্ত্বীয় বিষয়ের সিলেবাস সময়ের  চাহিদা অনুযায়ী আরও যুগোপযোগী করা যায় কি না- তা ভেবে দেখা দরকার। আর শিক্ষা সেক্টর  আমাদের শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনের 'চারু ও কারুকলা' শিক্ষা নিয়ে যেভাবে অবাস্তব ও একমুখী সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাতে দেয়ালে আমাদের পিঠ ঠেকে গেছে।'

.............

‘‘যেখানে চারুকলার উচ্চ ডিগ্রি নিয়ে চারুকলার অসংখ্য অভিজ্ঞতা সম্পন্ন জনবলের স্থায়ী কোনও কর্মসংস্থান নেই, সেখানে তাদের বয়সের সীমায়  আটকে রেখে শর্ট ডিপ্লোমাকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এ ধরনের সিদ্ধান্ত চারুকলার শিক্ষার্থী ও শিক্ষাকে নিরুৎসাহিত করবে।’’

.............

ঢাকার স্বনামধন্য একটি প্রাইভেট স্কুল ও কলেজের চারুকলা শিক্ষক সুজাউল করিম বলেন, 'স্কুলে চারুকলা বিষয়টি যুক্ত করার দীর্ঘ ৮ বছর অতিবাহিত হলেও এনটিআরসিএ  এখন পর্যন্ত এ বিষয়ের একজন শিক্ষক নিয়োগ দিতে পারেনি। অথচ সরকারি মাধ্যমিক স্কুলে যুগ যুগ থেকে বিষয় ভিত্তিক শিক্ষক দিয়ে চারু ও কারুকলার পাঠদান চলছে। শিক্ষায় এ ধরনের বৈষম্যমূলক কার্যক্রম চলমান থাকার কারণে বেসরকারি  স্কুলের বিশেষ করে গ্রামের শিক্ষার্থীরা এ শিক্ষায় পিছিয়ে পড়ছে।'

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের প্রাক্তন শিক্ষার্থী, ফ্রিল্যান্স আর্টিস্ট  আখিনূর রহমান ঝর্ণা বলেন, 'যেখানে চারুকলার উচ্চ ডিগ্রি নিয়ে চারুকলার অসংখ্য অভিজ্ঞতা সম্পন্ন জনবলের স্থায়ী কোনও কর্মসংস্থান নেই, সেখানে তাদের বয়সের সীমায়  আটকে রেখে শর্ট ডিপ্লোমাকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এ ধরনের সিদ্ধান্ত চারুকলার শিক্ষার্থী ও শিক্ষাকে নিরুৎসাহিত করবে। 'ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ (ইউডা)-এর প্রাক্তন শিক্ষার্থী, ফ্রিল্যান্স আর্টিস্ট অনিক কর্মকারের  মতে, 'চারুশিল্পীদের জন্য রাজধানী ছাড়াও দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সৃজনশীল শিক্ষা চর্চার ক্ষেত্র বৃদ্ধি করতে হলে চারুকলা শিক্ষক নিবন্ধনের বয়স, নিবন্ধনের সিলেবাস পরিবর্তন সহ ১ বছর মেয়াদী ডিপ্লোমার মতো অপ্রাসঙ্গিক বিষয়গুলো সংশোধন করাই হবে সঠিক সমাধান।'

জাগরণ/এসকেএইচ/এমএ

আরও পড়ুন