• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: মে ২১, ২০১৯, ০৭:৪৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ২১, ২০১৯, ০৭:৪৭ পিএম

পদ্মা সেতুর ১৩তম স্প্যান বসবে মে মাসের শেষ সপ্তাহে

মুন্সীগঞ্জ সংবাদদাতা
পদ্মা সেতুর ১৩তম স্প্যান বসবে মে মাসের শেষ সপ্তাহে

মে মাসের শেষ সপ্তাহে বসবে পদ্মা সেতুর ১৩তম স্প্যান। গত রোববার (২০ মে) ৩-বি নামের স্প্যানটি বসানোর কথা থাকলেও পদ্মা সেতুতে ১৪ নম্বর পিলারে লিফটিং হ্যাঙ্গার না বসাতে পারায় এবং পদ্মা নদীতে নাব্যতা সংকটের কারণে একাদশ স্প্যান ৩-বি পিলারের ওপর বসানোর শিডিউল পেছাল পদ্মা সেতু কর্তৃপক্ষ। পদ্মা সেতুর সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির সাংবাদিকদের এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

১৩তম এই স্প্যানটি মাওয়া প্রান্তের সেতুর ১৪ ও ১৫ নম্বর পিলারের ওপর বসানোর কথা। এর আগে কয়েক দফায় এই স্প্যান বসানোর তারিখ পরিবর্তন করা হয়।

পদ্মা সেতুর সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির আরো জানান, মাওয়া কন্সট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ৩ হাজার ৬০০ টন ধারণক্ষমতার ‘তিয়ান ই’ ভাসমান ক্রেন ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের প্রতিটি স্প্যান বহন করে। এরপর বসানো হয় পিলারের ওপর। ভাসমান ক্রেনে নিয়ে যাওয়ার জন্য স্প্যান লিফটিং হ্যাঙ্গার নেই। লিফটিং হ্যাঙ্গার ২৬ নম্বর পিলার এলাকায় পাইলিংয়ের কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে।

এছাড়া স্প্যান বহনকারী ক্রেনের রুটে নদীতে নাব্যতা সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে। পাইলিংয়ের কাজ শেষে স্প্যান বসানোর একটি তারিখ নির্ধারণ করে আনুমানিক ২৫-২৭ মের মধ্যে স্প্যান বসানো হতে পারে বলে এই প্রকৌশলী জানিয়েছেন।

এই স্প্যান বসানো হলে সেতুর মোট ১৯৫০ মিটার দৃশ্যমান হবে। জাজিরা প্রান্তে সেতুর ১৩৫০ মিটার ও মাওয়া প্রান্তের একটি স্থায়ী ও একটি অস্থায়ী স্প্যান মিলে মোট ৩০০ মিটার এবং সেতুর মাঝ বরাবর ৫-এফ স্প্যানটি অস্থায়ীভাবে বসানো শেষ হওয়ায় সেতুর মোট ১৮০০ মিটার আগেই দৃশ্যমান আছে। তবে স্প্যানগুলো ভিন্ন ভিন্ন মডিউলে বসানোর কারণে দৃশ্যমান অংশগুলো এক সারিতে নয়, বরং বিচ্ছিন্নভাবে থাকবে বলে সেতুর সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির নিশ্চিত করেছেন।

এনআই

Space for Advertisement