• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ আগস্ট, ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: জুলাই ১৮, ২০১৯, ০৫:২০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ১৮, ২০১৯, ০৫:২০ পিএম

বরগুনার পুলিশ সুপার

রিফাত হত্যার পরিকল্পনাকারীদের একজন মিন্নি

বরগুনা সংবাদদাতা
রিফাত হত্যার পরিকল্পনাকারীদের একজন মিন্নি

রিফাত শরীফ হত্যার পরিকল্পনাকারীদের একজন আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি। তিনি হত্যাকারীদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা এবং হত্যা পরিকল্পনাকারীদের সাথে আগে বৈঠক করেছেন বলে জানিয়েছেন বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টায় সংবাদ সম্মেলন করে পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, মিন্নিকে তারা জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। ইতোমধ্যেই হত্যা পরিকল্পনার সাথে যুক্ত থাকার প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ। তিনি আরো জানিয়েছেন, রিফাত হত্যা মামলায় গ্রেফতার হওয়া টিকটক হৃদয় ছাড়াও একাধিক আসামি ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়ে মিন্নির সম্পৃক্ততার কথা জানিয়েছে। হত্যা পরিকল্পনার আগের দিনও মিন্নি নয়ন বন্ডের বাসায় গিয়েছিলেন। ২৫ জুন রাতে একাধিক হত্যাকারীর সাথে মোবাইলে কথা বলেছেন মিন্নি, যার রেকর্ড পুলিশের হাতে রয়েছে।

রিফাত শরীফ, নয়ন বন্ড, রিফাত ফরাজী, রিশান ফরাজীসহ হত্যাকারীরা একসময় একই দলের সদস্য ছিল। রিফাত শরীফ ও রিফাত ফরাজী একটি মাদকের মামলায় একত্রে আসামিও ছিল। মিন্নিকে নিয়ে বিরোধ এবং মাদক ব্যবসার আধিপত্য নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। গত ৯ জুন ইয়াবাসহ রিফাত শরীফ গ্রেফতার হওয়ার পর বিরোধ আরো বেড়ে যায়। কারাগার থেকে বের হয়ে রিফাত শরীফ তাকে পুলিশে ধরিয়ে দেওয়ার জন্য রিফাত ফরাজী ও নয়ন বন্ডকে দায়ী করে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে মারামারির ঘটনাও ঘটেছে।

পুলিশের একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, ঘটনার দুই দিন আগে ২৪ জুন হেলাল নামের একজনের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয় রিফাত শরীফ। হেলাল ও রিফাত শরীফ একে অপরের বন্ধু হলেও নয়ন বন্ডের সাথে হেলালের ঘনিষ্ঠতা ছিল। ওই মোবাইল সেটটি রিফাত শরীফের কাছ থেকে উদ্ধার করে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে দায়িত্ব দিয়েছিল নয়ন বন্ড। রিফাত শরীফের কাছ থেকে মোবাইল আনতে গিয়ে মিন্নিকে মারধরের শিকার হতে হয়েছে। পরের দিন ২৬ জুন মোবাইল ফিরিয়ে দিতে নয়ন বন্ডের বাসায় গিয়েছিলেন আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি। তখন তার স্বামীর মারধরের বিষয়টি জানিয়ে প্রতিশোধ হিসেবে রিফাতকেও মারধরের অনুরোধ করেন মিন্নি।

ওইদিন সন্ধ্যার পরে বরগুনা সরকারি কলেজ মাঠে নয়ন বন্ড, রিফাত ফরাজী ও রিশান ফরাজীর নেতৃত্বে হত্যা পরিকল্পনার বৈঠক হয়। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২৬ জুন রিফাত শরীফকে কোপানো হয়।

এনআই

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন-

 

 

আরও পড়ুন

Islami Bank