• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ মে, ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ১০, ২০২১, ০৯:৪৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১০, ২০২১, ০৯:৪৮ পিএম

এ কেমন নিষ্ঠুরতা

এ কেমন নিষ্ঠুরতা

ঝালকাঠির নলছিটিতে ক্ষেতের ধান খাওয়ায় অমানবিকভাবে বাবুই পাখির ৩৩টি বাচ্চা পুড়িয়ে মারার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

উপজেলার ভৈরবপাশা ইউনিয়নের ঈশ্বরকাঠি গ্রামে শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। 

স্থানীয় জালাল সিকদারের ক্ষেতের ধান খাওয়ায় তিনি ওই এলাকার সিদ্দিক মার্কেটের সামনের তাল গাছে থাকা বাবুই পাখির বাসায় আগুন জ্বালিয়ে পুড়িয়ে মারেন ৩৩টি বাবুই ছানা। শনিবার (১০ এপ্রিল) জেলা বন বিভাগে লিখিতভাবে অভিযোগ জানিয়েছেন এলাকাবাসী। কিন্তু তারা কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। এ ঘটনায় যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

আবদুল্লাহ আল শিপন বলেন, “আমাদের জমিতে তাল গাছে বাবুই পাখি বাসা বেঁধেছে, পাখি কোনো ক্ষতি করছে না। জালাল সিকদার নিজে আমাদের তাল গাছে বাবুই পাখির বাসায় আগুন দিয়ে ৩৩টি বাচ্চা পুড়িয়ে মেরেছেন। আমি প্রতিবাদ করলে আমাকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছেন। নিষ্ঠুর এই ঘৃণ্য কাজ একজন মানুষ করতে পারে তা ভাবতেই অবাক লাগে। বাবুই পাখির অপরাধ, তারা নাকি ক্ষেতের ধান খেয়ে ফেলে।”

এলাকার পাখি প্রেমী অভিজিৎ বলেন, বন বিভাগকে ইতিমধ্যেই মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে। লিখিতভাবে অভিযোগ আকারে জানানো হবে। আমরা এঘটনায় যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য দাবি জানাচ্ছি।

ঝালকাঠি সদর উপজেলা বন কর্মকর্তা কার্তিক চন্দ্র মণ্ডল বলেন, “মৌখিক অভাযোগ পেয়েছি, এটা যদিও খুলনা বন ও বণ্যপ্রাণী বিভাগের আওতায়। আমাদের ঝালকাঠি অফিস হলো সামাজিক বন বিভাগের। তবুও আজ আমি ঘটনাস্থলে যাব।”

বাবুই পাখির নীড়ে আগুন লাগানো জালাল সিকদার এ ব্যাপারে অনুতপ্ত হয়ে জানান, ক্ষেতের ধান প্রতিদিন পাখিতে খেয়ে ফেলায় তিনি আর্থিক লোকসানের দিকে যাচ্ছিলেন। মাথা গরম থাকায় তিনি বাসা নষ্ট করেছেন। 

নলছিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুম্পা সিকদার জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।