• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: মে ১৪, ২০২১, ০৯:৪৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১৪, ২০২১, ০৯:৪৮ পিএম

বেকার স্বামীকে ছেলের সহায়তায় খুন করলেন স্ত্রী

বেকার স্বামীকে ছেলের সহায়তায় খুন করলেন স্ত্রী

যশোরের চৌগাছার আহাদ আলী হত্যার রহস্য মিলেছে। এ হত্যাকাণ্ডের জন্য নিহতের স্ত্রী জেসমিন আক্তার ও ছেলে হারুন অর রশিদ ওরফে সোহানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৪ মে) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সবুজ।

ওসি জানান, আহাদ আলী ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন। ৪-৫ মাস আগে তার মূত্রথলিতে অপারেশন হয়। সেই থেকে তিনি কোনো কাজ করতে পারতেন না। তার চিকিৎসায় সহায়-সম্বল সব বিক্রি করে দিয়েছে পরিবার। এসব বিষয় নিয়ে স্ত্রী-ছেলের সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া হতো আহাদ আলীর। কয়েকদিন আগে জমি বিক্রি করে একটি ট্রাক কেনার উদ্যোগ নেন আহাদ আলী। এতে বাধা দেয় স্ত্রী জেসমিন ও ছেলে সোহান। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরেই বাবাকে হত্যার পরিকল্পনা করে সোহান। পরিকল্পনা অনুযায়ী মায়ের সহযোগিতায় বুধবার রাত আড়াইটার দিকে বাঁশের সঙ্গে ছুরি বেঁধে ঘরের জানালা দিয়ে আহাদ আলীর গলায় ও বুকে আঘাত করে ছেলে। এতে প্রচুর রক্তক্ষরণে মৃত্যু হয় তার।

তিনি আরো জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৬টায় দিকে কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে ঘরের দরজা ভেঙে আহাদ আলীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে প্রতিবেশীরা। পরে তারা পুলিশে খবর দেয়। ঘটনাস্থল পর্যবেক্ষন শেষে সন্দেহবশত নিহতের স্ত্রী ও ছেলেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এক পর্যায়ে হারুন-অর-রশিদ ওরফে সোহান হত্যার দায় স্বীকার করে। তার দেয়া তথ্যেরই ঘরের পাশে বালুর স্তুপের নিচে পুঁতে রাখা হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি, বাঁশ, দড়ি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই মামলা করেছেন।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার দুর্গাবরকাঠি গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে ট্রাকচালক আহাদ আলীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর রাতেই নিহতের স্ত্রী ও ছেলের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন বড় ভাই আবেদ আলী।