• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮
প্রকাশিত: জুলাই ২৭, ২০২১, ০৪:৫৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ২৭, ২০২১, ১০:৫৮ এএম

পিরোজপুরে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ

পিরোজপুরে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ

পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলার পাড়েহাটে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর পেতে পাড়েরহাট ইউনিয়ন পরিষদের ৫নং ওয়ার্ড সদস্য মহসিন হাওলাদরকে ঘুষের টাকা না দেওয়ায় আশ্রয়ন প্রকল্পের সাধারণ সম্পদক আছাদুলকে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইউপি সদস্য মহসিনের বিরুদ্ধে মারধর ও বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদে ইন্দুরকানী উপজেলা পরিষদ চত্তরে মানববন্ধন করেছে আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকায় বসবাসকারী ভুক্তভোগীরা।

গত সোমবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ চত্তরে আয়োজিত মানববন্ধনে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। মানবন্ধনে ইউপি সদস্য মহসিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বক্তব্য রাখেন আবাসনের সাধারণ সম্পাদক মো. আছাদুল ইসলাম, তার স্ত্রী রুমা বেগম, মো. ছালেক হাওলাদার প্রমুখ।

আবাসনের সাধারণ সম্পাদক মো. আছাদুল ইসলাম মাঝি জানান, ইউপি সদস্য মহসিন হাওলাদার আবাসন এলাকায় আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর দেওয়ার কথা বলে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে ১০ থেকে ২০ হাজার টাকা করে আদায় করেছেন। টাকা দিতে না পারলে তাদের নামে ঘর বরাদ্ধের আবেদন করেনি।আমি এর আগে মেম্বারের লোক  হিসাবে কাজ করতাম। সম্প্রতি আমি মহসিন মেম্বারের বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদ করায় আমার নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাকে হয়রানি করা হয়।

পাড়েরহাট ইউনিয়ন পরিষদের ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য মহসিন হাওলাদার ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হওয়ায় দলীয় প্রভাব খাটিয়ে বিভিন্ন অনিয়ম করে আসছে। চাল বিতরণ, প্রকল্প আত্মসাৎ, সরকারি গাছ কাটাসহ তার বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক অনৈতিক আচরণের অভিযোগ।

ইউপি সদস্য মহাসিন হাওলাদার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগ মিথ্যা এবং বানোয়াট। উদ্দেশ্যমুলভাবে একটি চক্র আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্যে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।

ইন্দুরকানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসামৎ লুৎফুন্নেছা খানম বলেন, উভয় পক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা একটা তদন্ত কমিটি গঠন করে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।