• ঢাকা
  • বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১, ০৭:২৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১, ০৭:৩৪ পিএম

‘আদর্শ ইউনিয়নের রোল মডেল হবে কামারদহ‍‍’

‘আদর্শ ইউনিয়নের রোল মডেল হবে কামারদহ‍‍’
জাহিদ হাসান সিজু। ছবি- ফেসবুকে থেকে নেওয়া

প্রাণ সংহারী করোনা ভাইরাস মহামারির শেষ কবে, বিশ্বজুড়ে এ প্রশ্নের উত্তর এখনও অজানা হলেও এর মধ্যেই দেশে সময় ঘনিয়ে আসছে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের। সারা দেশে প্রথম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন শেষ হয়েছে। এবার দ্বিতীয় ধাপে ইউপি ভোট অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি চলছে। আগামীকাল বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দ্বিতীয় ধাপে ভোটের তফসিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রার্থীদের মাঝে চলছে জোর প্রচারণা। তারই ধারাবাহিকতায় ইউপি চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মো. জাহিদ হাসান সিজু। আসন্ন (ইউপি) নির্বাচনে গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ১৩ নং কামারদহ ইউনিয়নকে একটি রোল মডেল ও উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে জনগণের কাছে ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা শাখার যুবনেতা তিনি। ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সাথে সংশ্লিষ্টতা। বালুভরা দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং গোবিন্দগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করে।

এ বিষয়ে জাহিদ হাসান সিজু বলেন, দেখেন বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের উচ্চ পর্যায়ে। স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কঠোর পরিশ্রম দিয়ে যাচ্ছেন। আমরা সকলে সংঘবদ্ধ হয়ে এদেশকে আরও উন্নয়নের চূড়ায় নিয়ে যেতে যাই। আমাদের দেশ সোনার দেশ, এ সোনার দেশকে বিশ্বের কাছে সর্বদায় উজ্জ্বল, চকচকে রূপান্তরিত করতে চাই। দেশে যারা যুব সমাজ আছে তাদেরকে এদেশের উন্নয়নের পিছনে ঘামঝড়া পরিশ্রম করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের এই গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় মোট ১৯টি ইউনিয়ন আছে। জনগণ আমাকে তাদের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করার সুযোগ দিলে আমি বাকি ইউনিয়নগুলোর জন্য কামারদহ ইউনিয়নকে একটি রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে চাই। এখানে বেকার সমাজকে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার পরিকল্পনা ইতোমধ্যেই আমি নিয়েছি। ইউনিয়নের স্বাস্থ্যসেবা, তারুণ্যের জন্য নতুনত্ব নিয়ে কাজ করা, শিক্ষার উন্নতি, সবকিছু মিলে একটি স্বপ্নের ইউনিয়ন হিসেবে রূপান্তরিত করতে চাই। বিশেষ করে রাস্তাঘাটের দিকে বেশি নজর রাখতে চাই আমরা। 

১ নং ওয়ার্ডের ভোটার মো. হালিম বলেন, নির্বাচন ঘিরে তাদের প্রত্যাশা ও অনুভূতি আকাশছোঁয়া। সময় এখন বাংলাদেশের, সময় এখন তারুণ্যের। এই সময় শুধু নয়, ভবিষ্যতের সময়ও তারুণ্যের। ভবিষ্যতের বাংলাদেশও তরুণদের জন্যই। আর তারুণ্যের উপযোগী বর্তমান বিনির্মাণ করা গেলেই কেবল- ভবিষ্যত হবে বাংলাদেশের। তাই আমরা আমাদের ইউনিয়নে তারুণ্য ক্যান্ডিডেটই দেখতে চাই। 

ইউনিয়নের আরেক ভোটার বলেন, ইউনিয়নকে উন্নয়নের চূড়ায় নিয়ে যাক এমন ক্যান্ডিডিটই আমরা চাই। আমরা চাই সামনের দিকে এই ইউনিয়ন একটি রোল মডেল হিসেবে যেন পরিণিত হয়। এখানে শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা, বেকার সমাজ দূরিকরণ এগুলোর যেন আরও উন্নতি হয় এটাই আমরা আশা করি। 

জাগরণ/এমএইচ