• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর, ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯
প্রকাশিত: মার্চ ৩, ২০২২, ১২:৫৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ৩, ২০২২, ০৬:৫৩ এএম

চুয়াডাঙ্গায় ৫ বনবিড়ালকে হত্যার অভিযোগ

চুয়াডাঙ্গায় ৫ বনবিড়ালকে হত্যার অভিযোগ

চুয়াডাঙ্গায় ৫ বনবিড়ালকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এক গৃহবধুর বিরুদ্ধে। 

বুধবার (২ মার্চ) সদর উপজেলার শংকরচন্দ্র ইউনিয়নের দীননাথপুর গ্রামের মাদ্রারাসা পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই রাতে হত্যার ছবিগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এর আগে জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার জেহেলা গ্রামের কীটনাশক ব্যবসায়ী আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে বিষপান করিয়ে ১৫ কুকুরকে হত্যার অভিযোগ উঠে। 

স্থানীয়রা জানান, দীননাথপুর গ্রামের মাদ্রারাসা পাড়ার এক প্রবাসীর বাড়িতে মা বনবিড়াল বাচ্চাসহ অবস্থান করছিল। পরে প্রবাসীর স্ত্রী বাচ্চাসহ মা বনবিড়ালকে বাড়ির উঠানে বের করে পিটিয়ে হত্যা করে। মৃত বনবিড়ালগুলোকে বাড়ির পাশেই মাটিচাপা দেয়া হয়। এদিকে বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবসের আগের দিন এমন অমানবিক আচরণে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। বিলুপ্তপ্রায় বিভিন্ন বন্যপ্রাণীকে রক্ষায় সরকারকে আরো কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি উঠেছে।

কেয়ার ফর আনক্লেইমড বিস্টের (কাব) সভাপতি বখতিয়ার হামিদ জানান, ছোট্ট একটি ঘটনায় ১৫টি কুকুরকে হত্যা করা হলো। এরপরেই মা ও চারটি বাচ্চা বনবিড়ালকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। যারা এই ঘটনায় জড়িত তাদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

এদিকে এ ঘটনার পর মৃত বনবিড়ালগুলোর হত্যার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে প্রতিবাদ ও সমালোচনা শুরু হয়। 

চুয়াডাঙ্গার ভারপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা জাকির হোসাইন জানান, বিষপান করিয়ে ১৫টি কুকুর হত্যা, এরপর পাঁচটি বন বিড়ালকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা তিনি শুনেছেন। এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

জাগরণ/আরকে