• ঢাকা
  • সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯
প্রকাশিত: মার্চ ২৩, ২০২২, ১১:০৪ এএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ২৩, ২০২২, ০৫:০৪ এএম

এক লাখ টাকায় কন্যা শিশু বিক্রি

এক লাখ টাকায় কন্যা শিশু বিক্রি

বশির মজুমদারের দুই কন্যা সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে সংসার। একটি সড়ক ‍দুর্ঘটনায় পা ভেঙ্গে যায়। পরে রড লাগানো হয়। টাকার সংকটে সেই রড খুলতে পারছেন না তিনি। বিভিন্ন ব্যাক্তি ও এনজিওর কাছে আছে প্রায় ৫ লাখ টাকার ঋণ। চিকিৎসা খরচ ও ঋণের টাকা যোগাতে এক বছর বয়সী কন্যা শিশু মিনাকে বিক্রি করে দিয়েছে।

ঘটনাটি হাজীগঞ্জ পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ড খাটরা-বিলওয়াই বশির মজুমদারের ছোট কন্যা জুবেদা আক্তার মিনা। সোমবার (২১ মার্চ) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে ঘটনার সততা পাওয়া যায়।

শিশুর মা আছমা বেগম জানান, রবিবার চাঁদপুরে কোট এভিডেভিড এর মাধ্যমে শিশুকে বিক্রি করেন। ঋণগ্রস্ত থাকায় শিশুকে বিক্রি করার সিন্ধান্ত নেন তারা। এছাড়া তার স্বামী বশির মজুমদার অসুস্থ ও বেকার। তবে এখন ওই শিশু সন্তানকে ফেরত চান মা আছমা বেগম।

ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে শিশুর বাবা বশির মজুমদার এড়িয়ে যান। তবে তার বড় ভাই জানান ধেররা আবেদীয়া মোজাদ্দেদিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক কাজী হারুনুর রশিদের মাধ্যমে ঢাকায় এক নিঃসন্তান পরিবারের কাছে কন্যা শিশুকে বিক্রি করা হয়।

এ বিষয়ে ওয়ার্ড কাউন্সিলর মহসীন ফারুক বাদল ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, কোন শিশু সন্তার দত্তক দেয়া হলে পৌরসভাকে  অবহিত ও একটি ফরম পূরণ করতে হয়। কিন্ত পরিবারটি তা করেননি। 

হাজীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ জুবাইর সৈয়দ বলেন, শিশু বিক্রির খবর পেয়ে পুলিশের ফোর্স ঘটনাস্থলে গিয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

জাগরণ/আরকে