• ঢাকা
  • সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০২২, ০৫:০৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৮, ২০২২, ১১:০৩ এএম

কলাপাড়ায় ৪০ সেলাই নিয়ে হাসপাতালে দম্পতি

কলাপাড়ায় ৪০ সেলাই নিয়ে হাসপাতালে দম্পতি

কলাপাড়া প্রতিনিধি
জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে স্বজনদের সশস্ত্র হামলায় রক্তাক্ত জখম হয়ে কলাপাড়া হাসপাতালে যন্ত্রনায় ছটফট করছে ছালাম হাওলাদার ও তার স্ত্রী কাকলী বেগম। স্ত্রীর মাথায় ১৮ সেলাই। আর স্বামীর শরীরে ২২ সেলাই।

পটুয়াখালীর কলাপাড়ার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের গামইরতলা গ্রামে রোববার (১৭ এপ্রিল) সন্ধ্যায় এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। রাতে তাদের আশংকাজনক অবস্থায় কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নিজ বাড়ির পুকুর পাড়ে হাঁস পালনের জন্য জাল দিয়ে বেড়া দিতে যাওয়ায় এ হামলার স্বীকার হয় তারা। ধারালো অস্ত্রের কোপে কাকলী বেগমের মাথার পেছনের অংশের প্রায় দশ ইঞ্চি কেটে গেছে। এতে ১৮ সেলাই দেয়া হয়। 

আর চাচাতে ভাইদের ধারালো দায়ের কোপে ছালাম হাওলাদারের বুকে ও বাহু এবং ডান হাতের কবজি বরাবর তালু কেটে গেছে। তার শরীরে ২২টি সেলাই দেয়া হয়েছে।

আহত ছালাম হাওলাদার জানান, চলাচলের রাস্তা নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে তার ভাই শাহজাহান হাওলাদার, লোকমান হাওলাদার, সোহাগ, মিনারা ও আকলিমা এ হামলা চালায়। এ সময় প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ বিষয়ে থানায় মামলা দায়ের করবেন বলে জানান।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার জে এইচ খান লেলিন বলেন, কাকলীর মাথা থেকে ঘাড় পর্যন্ত ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গভীর ক্ষতে হয়েছে। তার স্বামী ছালামের বাম হাতের বাহুতে গুরুতর কোপের আঘাত। ডান হাতের আঙ্গুল দুটি কেটে বিচ্ছিন্ন হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসীম জানান, আমরা খবর পেয়ে আহত দু’জনকে দেখে এসেছি। তাদের কাছ থেকে সব শুনেছি। যারা এ ঘটনায় সাথে জড়িত তাদেরকে ধরতে আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি। এ ঘটনায় অবশ্যই আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হবে। 

জাগরণ/আরকে