• ঢাকা
  • বুধবার, ২৫ মে, ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: মে ১৩, ২০২২, ০৭:১৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১৩, ২০২২, ০১:১৯ পিএম

‘বিবস্ত্র’ অবস্থায় দরজা খুলল মেয়ে, বলল ‘বাবা সর্বনাশ করেছে’

‘বিবস্ত্র’ অবস্থায় দরজা খুলল মেয়ে, বলল ‘বাবা সর্বনাশ করেছে’
প্রতিকী ছবি

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে জুসের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ১৩ বছর বয়সী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে সৎবাবার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সোলাইমান। কিশোরীর ভাইয়ের করা মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, তিন বছর আগে কিশোরীর মায়ের সঙ্গে অভিযুক্তের বিয়ে হয়। এরপর থেকে ভুক্তভোগী কিশোরীর পরিবারের সঙ্গে থাকেন তিনি। গত বুধবার সকালে কিশোরীকে বাড়িতে রেখে বোনের বাড়িতে বেড়াতে যান মা। রাতে জুসের সঙ্গে মেয়েকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে দেন সৎবাবা। পরে অচেতন হয়ে পড়লে রাতভর তাকে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণের চিত্র মুঠোফোনেও ধারণ করেন।

সকালে কিশোরীর মামি ডাকাডাকি করলে বিবস্ত্র অবস্থায় দরজা খুলে দেন মেয়ে। পরে বিষয়টি স্থানীয় লোকদের জানান মামি। এরপর থানায় খবর দিলে অভিযুক্ত সৎবাবাকে আটক করে পুলিশ।

কিশোরীর খালা বলেন, অনেকক্ষণ ডাকাডাকির পর আমার ভাগ্নি দরজা খোলে। কিন্তু সে বিবস্ত্র ছিল। জিজ্ঞেস করতেই সে বলে সৎবাবা তার সর্বনাশ করেছে।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তার ভাইয়ের মামলায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

ইউএম