• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ আগস্ট, ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯
প্রকাশিত: জুন ৬, ২০২২, ০৮:২৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ৬, ২০২২, ০২:২৫ পিএম

অবশেষে ৬০৯ ড্রাম হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড নিলামে

অবশেষে ৬০৯ ড্রাম হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড নিলামে

চট্টগ্রাম বন্দরে চার বছর ধরে ৬০৯ ড্রাম হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড পড়ে রয়েছে। সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণের ঘটনার পর তড়িঘড়ি করে এগুলো নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

আজ সোমবার বিকালে এসব রাসায়নিক প্রকাশ্য নিলামে তুলে বিক্রি করা হবে।

চট্টগ্রাম কাস্টমসের উপকমিশনার (নিলাম) আলী রেজা হায়দার জানান, সীতাকুণ্ডের ঘটনার পর বন্দর কর্তৃপক্ষ বিপজ্জনক পণ্য নিলামে তোলার জন্য রবিবার কাস্টমস কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয়। চিঠি পাওয়ার পর কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্তে সেগুলো নিলামে তুলে বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয়। তিনি আরও জানান, দুই কনটেইনারের চালানটি প্রকাশ্য নিলামে তোলা হবে। সংরক্ষিত দামের ১০ শতাংশ পে-অর্ডার বা নগদ টাকা দিয়ে আগ্রহীরা নিলামে অংশ নিতে পারবেন। হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড টেক্সটাইল, ডাইংসহ নানা শিল্পে ব্যবহার করা হয়। এই পণ্য একসময় আমদানি হলেও বর্তমানে রফতানি হচ্ছে।

বন্দর সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরের কেয়া নিট কম্পোজিট লিমিটেড তুরস্ক থেকে চার বছর আগে হাইড্রোজেন পার-অক্সাইডের চালানটি নিয়ে আসে। আমদানির পর সেগুলো আজও খালাস করেনি। এরপর থেকে দুই কনটেইনারের চালানটি বন্দরের চত্বরে পড়ে আছে। চালানটিতে ৩০ হাজার ৪৫০ কেজি হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড রয়েছে। এই চালানের সংরক্ষিত দাম ধরা হয়েছে ২৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

উল্লেখ্য, সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে গত শনিবার রাতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে ৪৯ জন প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন দুই শতাধিক মানুষ। ডিপোর একটি কনটেইনারে আগুন লাগার পর আশপাশে থাকা শেড ও কনটেইনারে থাকা হাইড্রোজেন পার-অক্সাইডে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এর পর বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে।