• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১২ এপ্রিল, ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০
প্রকাশিত: মার্চ ১৩, ২০২৩, ১২:১২ এএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১৩, ২০২৩, ১২:১২ এএম

৭ দিনে বেড়েছে পেঁয়াজ ও মুরগিসহ ৭ পণ্যের দাম

৭ দিনে বেড়েছে পেঁয়াজ ও মুরগিসহ ৭ পণ্যের দাম
ছবি ● ফাইল ফটো

রোজার আগেই বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম। টিসিবি’র তথ্য বলছে, গেলো সাত দিনে বেড়েছে পেঁয়াজ-রসুন-আটা আর ব্রয়লার মুরগির মতো সাতটি পণ্যের দাম। 

ভোক্তা অধিদপ্তর বলছে, পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে বাজারে তাদের তদারকি চলছে। কর্মকর্তারা বলেছেন, সংযমের মাস রমজানের আগে অংসযমী হয়ে উঠেছেন অসাধু ব্যবসায়ীরা।

অনেক দিন ধরেই স্বস্তির খবর নেই বাজারে। তার উপরে চাল-ডাল-তেল-নুন আর মাছ-মাংসের মতো নিত্যখাদ্য পণ্য দাম বাড়তে-বাড়তে এখন নাগালের বাইরে।

টিসিবি’র তথ্য বলছে, গেলো এক সপ্তাহে নতুন করে দাম বেড়েছে, খোলা আটা, দেশি পেঁয়াজ ও রসুন এবং ব্রয়লার মুরগী মতো সাতটি পণ্যের। 

দ্রব্যমূল্যের চাপে এখন সবচেয়ে নাজুক অবস্থা দারিদ্রসীমার নিচে বসবাস করা সাড়ে তিন কোটি মানুষের। কারণ নিত্যখাদ্য পণ্যের অধিকাংশই এখন যে তাদের নাগালের বাইরে। 

এমন পরিস্থিতিতে সিন্ডিকেট বাজার অস্থিতিশীল করছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে রাজধানীর মিরপুরে শাহ আলী বাজারে তদারকি অভিযান চালায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

এ সময় অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মাগফুর রহমান বলেন, দুই মাস আগেই থেকেই দফায় দফায় বাড়তে থাকা চাল, ভোজ্যতেল, আদা, রসুন, খেজুরের দাম আরেক দফা বেড়েছে। 

এ অবস্থায় পরিবারের চাহিদা মেটাতে স্বল্প আয়ের মানুষের হিমশিম অবস্থা বলে স্বীকার করে এই কর্মকর্তা আরও জানান, রোজায় ভোক্তাকে স্বস্তি দিতে তারা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন।

তিনি বলেন, প্রতিনিয়তই ধাপে ধাপে সব নিত্যপণ্যের দাম বাড়ছে। যে টাকা উপার্জন করা হয়, তা দিয়ে চলা বেশ কষ্টকর। এখন হিমশিম খেতে হচ্ছে।

অভিযানে মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করাসহ বিভিন্ন অনিয়মে পাঁচটি দোকান মালিককে জরিমানা করা হয়। বাজারকে স্থিতিশীল রাখতে রমজান মাসজুড়ে বাজার নজরদারি ও অভিযান চালবে।

সেই সঙ্গে প্রয়োজনের বেশি পণ্য কিনে বাসায় মজুত না করতে ক্রেতাদের প্রতি আহ্বানও জানান তিনি। এতে বাজারে পণ্যের ঘাটতি দেখা দেয়। যার ফায়দা লুটে এক প্রকার ব্যবসায়ীরা।

জাগরণ/অর্থনীতি/এসএসকে