• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
প্রকাশিত: আগস্ট ২৭, ২০২৩, ১২:১২ এএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ২৭, ২০২৩, ১২:১২ এএম

সেদ্ধ চালেও শুল্ক বসাল ভারত

সেদ্ধ চালেও শুল্ক বসাল ভারত
ছবি ● ফাইল ফটো

অভ্যন্তরীণ বাজারে দাম নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য পেঁয়াজ রপ্তানিতে ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করেছিল ভারত সরকার।

এবার সেদ্ধ চালের রপ্তানিতে ২০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করেছে দেশটি। শুক্রবার (২৫ আগস্ট) থেকেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়। 

সেদ্ধ চালের রপ্তানিকারক দেশগুলোর মধ্যে প্রথমদিকে রয়েছে ভারত। দেশটি রপ্তানিতে শুল্ক আরোপ করায় বিশ্ববাজারে কমে যাবে সরবরাহ। এতে বেড়ে যেতে পারে সেদ্ধ চালের দাম। এরই মধ্যে দাম গত ১২ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চে ঠেকেছে।

তবে এক বিজ্ঞপ্তিতে ভারতের অর্থ মন্ত্রণালয় বলছে, অভ্যন্তরীণ মজুত ঠিক রাখা এবং দাম নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে সেদ্ধ চাল রপ্তানির ওপর শুল্ক আরোপ করেছে সরকার। আগামী ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত কার্যকর থাকবে এই সিদ্ধান্ত। 

এর আগে গত মাসে সেদ্ধ সাদা চাল রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল ভারত সরকার। ওই নিষেধাজ্ঞার লক্ষ্য ছিল অভ্যন্তরীণ সরবরাহ বাড়ানো। এ ছাড়া আসন্ন উৎসব মৌসুমের সময় চালের খুচরা দাম নিয়ন্ত্রণ রাখতে চাইছে দেশটি।

ভারত থেকে রপ্তানি হওয়া চালের প্রায় ২৫ শতাংশ অবাসমতী সাদা চাল। তারও আগে গত বছরের সেপ্টেম্বরে চাল রপ্তানি নিষিদ্ধ করেছিল ভারত।

এ নিষেধাজ্ঞার কারণে অনেক বিশ্ববাজারের অনেক প্রতিষ্ঠান বেশি দামে বিক্রি শুরু করে। আর তাতেই বেড়ে যায় দাম। এমনটাই জানিয়েছেন মুম্বাইভিত্তিক একটি ডিলার প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, সেদ্ধ চাল কেনার জন্য আর তেমন বড় বাজার নেই। ফলে দাম বেড়েই যাবে। 
   
২০২২ সালে ৭৪ লাখ টন সেদ্ধ চাল রপ্তানি করেছিল ভারত। বিশ্বের ৪০ শতাংশ চাল ভারত থেকে রপ্তানি করা হয়। তারা চাল রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ায় অন্য আমদানিকারক দেশে চালের দাম বৃদ্ধির পেতে পারে। বাংলাদেশও ভারত থেকে সেদ্ধ চাল আমদানি করে। রয়টার্স।

জাগরণ/অর্থনীতি/এসএসকে