• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০২০, ১০:৫৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২২, ২০২০, ১০:৫৯ পিএম

‘৪৪ দিন গেলেও করোনারোগী ইতালির চেয়ে বহু কম’

জাগরণ ডেস্ক
‘৪৪ দিন গেলেও করোনারোগী ইতালির চেয়ে বহু কম’
সংগৃহীত ছবি

দেশবাসীর সচেতনতার ফলেই করোনাভাইরাস সংক্রমণে এখনও মহাবিপর্যয় হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। 

তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের কারণেই আক্রান্তের ৪৪ দিন পার হলেও দেশে করোনা রোগীর সংখ্যা ইতালি, ফ্রান্স ও আমেরিকা থেকে বহুগুণ কম রয়েছে।

বুধবার (২২ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে ‘জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ-২০২০’ উপলক্ষে আয়োজিত জাতীয় স্টিয়ারিং কমিটির আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। 

মন্ত্রী বলেন, দেশে আজ (বুধবার) করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৩ হাজার ৯৬টি। গতকালও (মঙ্গলবার) প্রায় ৩ হাজার জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়। কিন্তু বিশ্বের অন্যান্য দেশে ৪৪ দিনে এসে যখন লাখ লাখ মানুষ আক্রান্ত হয়েছে সেখানে আমাদের দেশে মোট আক্রান্ত এখন ৩ হাজার ৭৭২ জন। দেশে দৈনিক আক্রান্ত সর্বোচ্চ ৩০০ থেকে ৪০০ এর ঘরেই আছে।

দেশে আক্রান্তের সংখ্যা কম রাখা এমনি এমনি সম্ভব হয়নি উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চিকিৎসক ও নার্সদের জীবন বাজি রেখে লড়াই করা, স্বাস্থ্যখাতের যথাসময়ে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী উদ্যোগ গ্রহণ, একই সঙ্গে জনগণের সরকারি নির্দেশনাগুলো মেনে আত্মসচেতনতা বৃদ্ধির ফলেই দেশে করোনা এখনও মহাবিপর্যয়ে পৌঁছেনি।

করোনায় দেশের এ বর্তমান চিত্রটি আর কিছুদিন ধরে রাখা গেলেই মহামারিকে ভালোভাবে রুখে দেওয়া সম্ভব হবে বলে জানান মন্ত্রী।

করোনা দুর্যোগের এ সময়ে কোনও সমালোচনায় হতাশ না হয়ে স্বাস্থ্যখাতের সবাইকে জনগণের পাশে থেকে নিরলসভাবে কাজ করে যাওয়ার আহ্বান জানান জাহিদ মালেক। এক্ষেত্রে সরকারের প্রতিটি নির্দেশনা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখার জন্যও অনুরোধ করেন তিনি।

পরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী পুষ্টি দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরেন এবং বক্তব্য শেষে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ-২০২০ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

প্রতি বছরের মতো আগামী ২৩-২৯ এপ্রিল দেশব্যাপী জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ পালন করা হবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ উপলক্ষে দেশব্যাপী এতিমখানা ও লিল্লাহ বোর্ডিংয়ে পুষ্টিকর খাবার বিতরণ, মুক্তিযোদ্ধা ও সাধারণ জনগণের মাঝে পুষ্টিবার্তা সম্বলিত ছাতা, টি-শার্ট, শাড়ি ও হাত ধোয়ার উপকরণ স্বারক উপহার হিসেবে দেয়ার ব্যাপারেও সিদ্ধান্ত নেয়া হয় সভায়। ইউএনবি।

এসএমএম

আরও পড়ুন