• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৭ মে, ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: মার্চ ১০, ২০২১, ০১:৫৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ২৫, ২০২১, ০৯:৩০ এএম

অন্তঃসত্ত্বা নারীর ডায়াবেটিস, সতর্ক করলেন চিকিৎসক

অন্তঃসত্ত্বা নারীর ডায়াবেটিস, সতর্ক করলেন চিকিৎসক

ডায়াবেটিস এমন একটি রোগ, যা এখন বয়স বেধে হয় না। যেকোনও বয়সেই শরীরে বাসা বাধে এই রোগটি। শুধু তাই নয়, অন্তঃসত্ত্বা নারীদেরও ডায়াবেটিস হয়। যা খুবই ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে বলে জানান  চিকিৎসকরা।

অন্তঃসত্ত্বা নারীদের ডায়াবেটিসে সতর্কতা এবং করনীয় কি কি এ সংক্রান্ত নানা বিষয়ে কথা বলেছেন  বারডেম জেনারেল হাসপাতাল ও ইব্রাহিম মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ও রেসপেরেটরি মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান চিকিতসক মো. দেলোয়ার হোসেন।

চিকিতসক মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, “অন্তঃসত্ত্বা নারীদের যদি ডায়াবেটিস হয় তবে তা বাচ্চা ও মা দু’জনের জন্যেই ক্ষতিকর। এটি নিয়ন্ত্রণে রাখা দরকার। নিয়ন্ত্রণে না থাকলে মায়ের গর্ভে থাকা শিশুর নানা সমস্যা হয়।“

“প্রেগনেন্ট হওয়ার আগে অবশ্যই ডায়াবেটিস পরীক্ষা করে নেবেন। ডায়াবেটিস থাকলে ইনসুলিন দিতে হবে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী। সুগারের মাত্রা ঠিক রেখে প্রেগনেন্সির জন্য চেষ্টা করতে হবে। প্রয়োজনীয় চিকিতসা নিতে হবে। যেন বাচ্চা ও মা দুজনই সুস্থ থাকেন।“

গর্ভের সন্তানের কী কী সমস্যা হয়, এ বিষয়ে দেলোয়ার হোসেন বলেন, “ডায়াবেটিক নিয়ন্ত্রণে না থাকলে  গর্ভের শিশু সঠিকভাবে বড় হতে পারে না। নানা জটিলতা দেখা দেয়। গর্ভের শিশুটি মাত্রাতিরিক্ত বড়  হয়ে যায়, শ্বাস নিতে কষ্ট হয়। এছাড়াও জন্মের পর শিশুটির হাইপোগ্লাইসেমিয়া হতে পারে।“

অন্তঃসত্ত্বা নারীর শরীরের ক্ষতি নিয়ে তিনি বলেন, “ডায়াবেটিস থাকলে অন্তঃসত্ত্বা নারীর দেহে রক্ত চলাচল কমে যায়। উচ্চ রক্তচাপ হয়। এছাড়াও নানা জটিলতা হতেই থাকে। তাই এটি নিয়ন্ত্রণে খেয়াল রাখতে হবে।“

“এছাড়াও শিশুর জন্মের পরও তার দেহে ডায়াবেটিস ধরা পড়তে পারে। শিশুদের টাইফয়েড ডায়াবেটিস হতে পারে। ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করুন। প্রয়োজনে ইনসুলিন নেওয়া যেতে পারে। তবে অবশ্যই ভালোভাবে পরীক্ষা করে নিতে হবে।“

“দেশে ডায়াবেটিস সমিতির অনেকগুলো কার্যক্রম রয়েছে। তারা বিনামূল্যে টাইফয়েড ডায়াবেটিসে ইনসুলিন দিচ্ছে। আমাদের অনেক রোগী আছে, যারা ছোটবেলা থেকেই ইনসুলিন নিচ্ছে। ষষ্ট শ্রেনি  থেকে ডায়াবেটিস ধরা পড়েছে এবং নিয়মিত ইনসুলিন নিচ্ছে। এখন তিনি ডাক্তারও হয়ে গেছেন। তাই এতে ভয়ের কিছু নেই।“