• ঢাকা
  • সোমবার, ০৪ মার্চ, ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৪, ২০২১, ০৩:২০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২৩, ২০২১, ০৪:০০ পিএম

করোনায় গর্ভবতীদের চেকআপ কতবার?

করোনায় গর্ভবতীদের চেকআপ কতবার?

গর্ভাবস্থায় নারীরা সাধারণত নিয়মিত চেকআপের জন্য হাসপাতালে যান। কিন্তু করোনার এই সময় ঘর থেকে বের হওয়াই ঝুঁকিপূর্ণ। তাই নিয়মিত চেকআপে কীভাবে যাবেন তা নিয়ে সন্তানসম্ভবা নারীরা দুশ্চিন্তায় পড়েন। সেই সঙ্গে পরিবারের মানুষরাও বুঝতে পারেন না করোনার সময় নিয়মিত চেকআপে নিয়ে যাওয়া গর্ভবতী নারীর জন্য কতটা নিরাপদ।

এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট ধারণা দিয়েছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের গাইনি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক, প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. ফরিদা ইয়াসমিন সুমি।

ডা. ফরিদা ইয়াসমিন সুমি বলেন, ‘একজন সাধারণ সন্তানসম্ভবা নারীর সর্বমোট ৮ বার চিকিৎসকের কাছে যেতে হয়। কিন্তু করোনার সময়ে এই বিষয়ে কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) থেকে বলা হচ্ছে, একজন গর্ভবতী নারীর করোনার সময়ে সর্বোচ্চ ৪ বারের বেশি নিয়মিত চেকআপে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। কিন্তু ঝুঁকিপূর্ণ মায়ের ক্ষেত্রে এই নিয়মটা চলবে না। সেক্ষেত্রে তাদের জন্য় আলাদাভাবে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

‘গর্ভবতী কোনো নারী যদি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হন, আবার কেউ যদি হাইপার টেনশনে ভোগেন, তাদের জন্য় নিয়মটা হবে আলাদা। তাদের চিকিৎসক যেভাবে পরামর্শ দেবেন সেভাবেই চেকআপে যেতে হবে।’

‘তবে সাধারণ গর্ভবতীরা কমপক্ষে ৪ বার নিয়মিত চেকআপে যাবেন। এর বেশি প্রয়োজন হবে না। নিয়মিত চেকআপের ৪ বারের সময়টা হবে— ১৬ সপ্তাহে, একটি ২১-২৮ সপ্তাহের মধ্যে, আরেকটি ৩২ সপ্তাহে এবং আরেকটি ৩৪-৩৬ সপ্তাহের মধ্যে।’