• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: মে ১০, ২০২১, ১২:৪৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১০, ২০২১, ০৫:৩৪ পিএম

ঘণ্টায় কতবার নাক-মুখে স্পর্শ করছেন?

ঘণ্টায় কতবার নাক-মুখে স্পর্শ করছেন?

করোনাভাইরাস সংক্রমণ দ্রুত ছড়ায় নাকে ও মুখের মাধ্যমে। অর্থাৎ ভাইরাসটি হাতে বহণ করে নাক ও মুখের মধ্য দিয়ে শরীরের প্রবেশ করে। তাইতো বিশেষজ্ঞরা বার বার হাত ধোয়ার পরামর্শ দেন।

ভাইরাসটি অনেক শক্তিশালী। যা আমাদের বিন্দুমাত্র অবহেলার কারণে সংক্রমণ করতে পারে। বিশেষ করে যে কোন কিছুর স্পর্শ করা বা সংস্পর্শে এলেই এই ভাইরাস সহজে আক্রমণ করে। মানুষের হাত সবচেয়ে বেশি ঝুুকি বহণ করে। হাত দিয়ে শরীরের যেকোন অংশ বারবার স্পর্শ করে সংক্রমণ মুহূর্তের মধ্যেই ছড়িয়ে পরে।

গবেষকরা বলেন, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে বারবার হাত ধোয়া ও মাস্ক পরার বিকল্প নেই। কারণ ভাইরাসটি আমাদের নাক-মুখ দিয়ে আমাদের শরীরে প্রবেশ করে। যা হাতের মাধ্যমে বাহিত হয়। জ্ঞানে বা অজ্ঞানে নানা কারণে হাত দিয়ে ঘণ্টার প্রায় বহুবার আমরা নাক ও মুখে স্পর্শ করি। 

আমরা ঘণ্টায় কতবার হাত দিয়ে নাক ও মুখ স্পর্শ করে থাকি তা নিয়েও একটি ধারনা দিয়েছেন গবেষকরা। যা জানলে আপনিও চমকে যাবেন।

এক গবেষণা বলা হয়েছে, ডাক্তাররা বা ডাক্তারি বিষয়ের পড়ুয়ারা ঘণ্টায় মোটামুটি ২৩ বার হাত দিয়ে নাক-মুখ স্পর্শ করে থাকেন।

অফিসের কর্মকর্তারাও হাত দিয়ে নাক ও মুখ স্পর্শ করেন ঘণ্টায় অন্তত ১৬ বার। যারা খুব বেশি স্বাস্থ্য সচেতন তারাও ঘণ্টায় অন্তত ৯ বার অজান্তেই এই কাজটি করেন।

করোনা ভাইরাসকে নিজেরাই কাছে ডেকে আনছি নিজেদের অজান্তেই। এই অভ্যাস দ্রুত সারিয়ে তোলা সম্ভব নয় বলেই গবেষকরা হাত ধোয়া, মাস্ক পরা ও স্যানিটাইজ ব্যবহার করার পরামর্শ দিয়েছেন। যা একমাত্র সমাধান হতে পারে। তবে হাত দিয়ে নাক, মুখে স্পর্শ করার বিষয়টিতে সচেতন হতে হবে। আমাদের সচেতনতাই এই মহামারি থেকে আমাদের বাঁচাবে।