• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: মে ১২, ২০২১, ০৩:১৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১৩, ২০২১, ১০:১৩ এএম

রোগের সমাধান কাঁচা আম

রোগের সমাধান কাঁচা আম

কাঁচা আম খেতে কে না ভালোবাসে। ছোটবেলায় গ্রীষ্মের দুপুরে আম কুড়ানোর দিনগুলো হয়তো এখনও ভাবায়। বড় হয়েও কিন্তু কাঁচা আমের প্রতি ভালোবাসা কমেনি। এখনও কাঁচা আম ভর্তা, তরকারি, ডাল নানাভাবে খান।

অনেকে আবার বলেন, কাঁচা আম খাওয়া ভালো নয়। অথচ এর স্বাস্থ্য গুণ জানলে অবাক হবেন। কাঁচা আম খেলে ওজনও নিয়ন্ত্রণে থাকে। তাই ডায়েট চার্টে কাচা আম অবশ্যই রাখুন।

ডায়েটে প্রতিদিন কাঁচা আমের রাখলে কী উপকার মিলবে তা জানাব আজকের আয়োজনে।

  • কাঁচা আমে ফ্যাট নেই। তাই আপনি ডায়েটে থাকলেও কাঁচা আম খেতে পারেন। ১০০ গ্রাম কাঁচা আমে ৬০ ক্যালরি থাকে।
  • কাঁচা আমে থাকে ফাইবার। ফলে সহজপাচ্য হয়। হজম শক্তিও ভালো হয়।
  • আমে এমন কিছু উৎসেচক থাকে যার ফলে শরীরের প্রোটিন ভেঙে যায়। প্রতিদিন নিয়মিত কাঁচা আম খেতে পারলে আপনার পাচনতন্ত্র আরো শক্তিশালী হবে। পাকস্থলীর নানা সমস্যা দূর হবে।
  • সকালে কাঁচা আম খেতে পারেন। এতে কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়রিয়া হজমের সমস্যার সমাধান হয়।
  • কাঁচা আমের শরবত শরীরকে আদ্র রাখতে সাহায্য করে। হিট স্ট্রোক এড়াতে সাহায্য করে।
  • বিকেলে কাঁচা আম খেতে পারেন। সারাদিনের ঝিমুনিভাব কেটে যাবে।
  • কাঁচা আম শরীরে শক্তি বৃদ্ধি করে। সারাদিন তরতাজা ও প্রাণবন্ত থাকতে পারবেন।