• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮
প্রকাশিত: আগস্ট ৫, ২০২১, ০১:৫৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ৪, ২০২১, ০৭:৫৯ পিএম

ডায়াবেটিক ধান আবিষ্কার

ডায়াবেটিক ধান আবিষ্কার
প্রতীকী ছবি

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে গেলে খাবার-দাবারের ক্ষেত্রেও বেশ কিছু নিয়মবিধি মেনে চলতে হয়। তার মধ্যে অন্যতম হল ভাত। কেননা গ্লাইসেমিক ইনডেক্স ভাত রয়েছে একদম উপরের দিকে । যে খাবারগুলো গ্লাইসেমিক ইনডেক্সে উপরের দিকে থাকে ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের শরীরে সেগুলো ক্ষতি করতে পারে। তাই ডায়াবেটিসের রোগীরা ভাত সাধারণত খুবই কম খান, অনেকে খেতেই পারেন না। অথচ এ দেশের বেশিরভাগ মানুষই ভাত খেতে ভীষণ পছন্দ করেন।

কোন ভাত খেতে পারেন?

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব অ্যাগ্রিকালচার রিসার্চের বিজ্ঞানীরা এবার এই সমস্যার সমাধানে এগিয়ে এসেছেন। কারণ ডায়াবেটিসের সমস্যা এখন প্রায় সব ঘরেই। তাই নতুন কয়েকটি ধান তারা আবিষ্কার করেছেন, যা গ্লাইসেমিক ইনডেক্সে তুলনায় অনেকটা নীচের দিকে থাকবে। এই ধানগুলো হল ললাট ৫৩.১৭, বিপিটি ৫২০৪, সম্পদ ৫১ এবং সাম্বা মাশুরি ৫৩।

প্রতীকী ছবি।

কেন এই ভাত উপকারি?

উচ্চ ফলনশীল এই নতুন ধরনের চালগুলোতে গ্লাইসেমিক ইনডেক্সে নীচের দিকে থাকায় থাকায় তা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করবে। তাই ডায়াবেটিসে আক্রান্তরা নিয়ম মেনে এই চালের ভাত খেতে পারেন। আনন্দবাজার।

জাগরণ/এমএ