• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল, ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: মার্চ ১, ২০২০, ০৫:১৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১, ২০২০, ০৫:৪৫ পিএম

শেকড়ের টানে বাঙালির পাশে-১

পথে প্রান্তরে গান গেয়ে অর্থ সহায়তা তুলেছিলেন রুমা গুহঠাকুরতা

সবিশেষ
পথে প্রান্তরে গান গেয়ে অর্থ সহায়তা তুলেছিলেন রুমা গুহঠাকুরতা
রুমা গুহঠাকুরতা

মু ক্তি যু দ্ধে র  সু হৃ দ

একাত্তরের সেই অগ্নিঝরা দিন। গোটা ভারতের লেখক, সাংবাদিক, সাহিত্যিক ও বুদ্ধিজীবীর‍া সোচ্চার আমাদের মুক্তি সংগ্রামের পক্ষে। তারা সবাই ঐক্যবদ্ধ ‘মানবিক বোধ’ এর টানে। আবার অনেকের হৃদয়ে এই বোধের সঙ্গে ছিল মাটি ও শেকড়ের টান। এবারের অগ্নিঝরা মার্চে তাদের নিয়েই দৈনিক জাগরণ এর বিশেষ আয়োজন। আজ প্রকাশিত হলো প্রথম কিস্তি। লিখেছেন জাকির হোসেন

......

একাত্তরে এদেশের মুক্তিকামী মানুষকে সহযোগিতা করার জন্য দিল্লির পথে পথে গান গেয়ে অর্থ সংগ্রহ করেছিলেন রুমা গুহঠাকুরতা। ট্রাকে একদল শিল্পীকে নিয়ে দিল্লির বিভিন্ন সড়কে গান গেয়ে অর্থ তুলতেন তিনি। তাদের ট্রাকের সামনে বাঁধা থাকতো কালো কাপড়ে ওপর সাদা হরফে লেখা ব্যানার ‘ইস্ট বেঙ্গল ইজ ব্লিডিং’। প্রথম দিনই দিল্লির মানুষ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। অর্থ সংগ্রহ হয় প্রায় ১০ হাজার টাকা।মুক্তিকামী শরণার্থীদের সহযোগিতায় এ টাকা দিয়ে দেয়া হয় পশ্চিমবঙ্গের ত্রাণ তহবিলে।

রুমা গুহঠাকুরতা মু্ক্তিযু্দ্ধের সময় এভাবেই বাংলাদেশের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। দিল্লিতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ও সীমান্ত এলাকার পথে প্রান্তরে গান গেয়ে অর্থ তুলেছেন তিনি। সহযোগিতা করেছেন শরণার্থী শিবিরে ভারতীয় মেডিকেল টিমকে। শুধু ভারতেই নয়, শরণার্থীদের সহযোগিতা করার জন্য সুদূর যুক্তরাজ্যেও কয়েকটি অনুষ্ঠ‍ানের গান করেন তিনি। লন্ডনের প্রাচীন হল স্যাডলার্স ওয়েল থিয়েটার, অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি, ক্যামব্রিজ ‌ইউনিভার্সিটি ও সাসেক্স ইউনিভার্সিটিতেও অনুষ্ঠান করেন। এসব অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অর্জিত অর্থ দেন বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ সহায়ক তহবিলে। লন্ডনে আয়োজিত এসব অনুষ্ঠানে রুমা গুহঠাকুরতার সঙ্গে গান গেয়েছিলেন নির্মলেন্দু চৌধুরী, সবিতা ব্রত দত্ত এবং বাংলাদেশের তিনজন শিল্পী।

রুমার অনুষ্ঠানে তবলা বাজিয়েছিলেন প্রখ্যাত তবলা বাদক রাধা কান্ত নন্দ ও চন্দ্র কান্ত নন্দী। লন্ডনে এসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন প্রবাসী ভারতীয় বীরেন্দ্র শংকর।

বীরেন্দ্র শংকর বাংলাদেশের মানুষকে গভীরভাবে ভালোবাসতেন।

স্বামী কিশোর কুমারের সাথে রুমা গুহঠাকুরতা

রুমা গুহঠাকুরতার পৈত্রিক নিবাস যশোর। মায়ের বাড়ির ময়মনসিংহে। বিয়ে করেছিলেন বরিশালের বানারীপাড়ার গুহঠাকুরতা পরিবারে। স্বামী অরূপ গুহঠাকুরতা। তিনি ছিলেন চলচ্চিত্র নির্মাতা।

২০১৯ সালের ৩ জুন ভোর সোয়া ৬টার দিকে কলকাতায় নিজের বাড়ি ৩৮ বালিগঞ্জ প্লেসে ঠাকুরতা হাউসে ঘুমের মধ্যে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু বর্ষীয়ান অভিনেত্রী রুমা গুহঠাকুরতা। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

কিশোর কুমারের প্রথম ছিল স্ত্রী রুমা গুহঠাকুরতা।তাদের সন্তান অমিত। ১৯৩৪ সালে কলকাতায় জন্ম হয় রুমার। বাবা সত্যেন ঘোষ এবং মা সতী ঘোষ তৎকালীন সংস্কৃতি জগতের উজ্জ্বল করা মুখ।  ১৯৫২ সালে কিশোর কুমারের সঙ্গে বিয়ে হয় রুমা গুহঠাকুরতার। ১৯৫৮ সালে বিচ্ছেদ হয়ে যায় তাদের। কিশোরের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ১৯৬০ সালে রুমার সঙ্গে বিয়ে হয় অরূপ গুহঠাকুরতার। তাদের দুই সন্তান বিশিষ্ট গায়িকা শ্রমণা চক্রবর্তী ও অয়ন গুহঠাকুরতা।

আসিতে আসিও না ছবিতে ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়র সাথে রুমা গুহঠাকুরতা

দেবব্রত বিশ্বাসের ছাত্রী রুমা ঠাকুরতা  গেয়েছেন— ‘অমৃত কুম্ভের সন্ধানে’, ‘বাঘিনী’, ‘পলাতক’ সহ আরও বেশ কিছু বিখ্যাত ছবিতে।

শুধু সঙ্গীতশিল্পী হিসাবেই নয় অভিনেত্রী হিসাবেও অত্যন্ত দক্ষ ছিলেন রুমা। সত্যজিৎ রায় থেকে তপন সিংহ, তরুণ মজুমদার থেকে রাজেন তরফদার প্রত্যেকের ছবিতে অভিনয়ের জন্য প্রশংসিত হয়েছেন।

‘গঙ্গা’, ‘শাখা-প্রশাখা’, ‘আরোগ্য নিকেতন’, ‘আশিতে আসিও না’, ‘অভিযান’, ‘পলাতক’, ‘বাঘিনী’, ‘নির্জন সৈকতে’, ‘বালিকা বধূ’, ‘পার্সোন্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট’, ‘দাদার কীর্তি’, ‘হংসমিথুন’, ‘ত্রয়ী’, ‘৩৬ চৌরঙ্গী লেন’ সহ বহু বাংলা ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন রুমা গুহঠাকুরতা।

কলকাতায় পরিবারের সদস্যদের সাথে রুমা গুহঠাকুরতা

‘জোয়ার ভাটা’, ‘মশাল’, ‘আফসর’, ‘রাগ রং’-এর মতো হিন্দি ছবিতেও অভিনয় করেছেন তিনি।

‘অভিযান’ ছবিতে যেমন অত্যন্ত সিরিয়াস একটি চরিত্রে তাকে দেখা গিয়েছে, তেমন আবার ‘আশিতে আসিও না’ কিংবা ‘পলাতক’-এ একেবারে ভিন্ন চরিত্রে  দেখা গেছে রুমা গুহঠাকুরতাকে।

ক্যালকাটা ইয়ুথ কয়্যারের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন রুমা। ‘বিস্তীর্ণ দু’পারে অসংখ্য মানুষের’ কিংবা ‘ভারতবর্ষ সূর্যের এক নাম’ গানগুলো শুনলেও ক্যালকাটা ইয়ুথ কয়্যারে রুমার সঙ্গীত পরিচালনার কথাও মনে পড়ে অনেকের।

ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ‘আশিতে আসিও না’ ছবিতে ‘তুমি আকাশ এখন যদি হতে’ গানটির দৃশ্যায়নে রুমার অভিনয় আজীবন মনে রাখবেন দর্শক-শ্রোতারা। 

জেডএইচ/এসএমএম