• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮
প্রকাশিত: মার্চ ১৮, ২০২১, ১১:২৭ এএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১৮, ২০২১, ১১:২৮ এএম

জর্ডানে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন 

জর্ডানে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন 

জর্ডানে বাংলাদেশ দূতাবাস বঙ্গবন্ধুর ১০১তম জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০২১ পালন করেছে। দিনের শুরুতে এই দিবস উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রদূত নাহিদা সোবহান দূতাবাসে জাতীয় সঙ্গীতের সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। 

এ সময় বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ এবং জর্ডানে বসবাসরত বাংলাদেশ কমিউনিটির প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।  

পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে বঙ্গবন্ধুর স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। 
আলোচনা অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধুর ওপর আলোকচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এরপর পবিত্র কোরান থেকে তেলোয়াত ও বঙ্গবন্ধুর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। 

দিবসটি উপলক্ষ্যে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী প্রদত্ত বাণী পাঠ করা হয়। 

রাষ্ট্রদূত নাহিদা সোবহান তিনি বলেন, “১৭ মার্চ বাংলাদেশীদের জন্য এক গুরুত্বপূর্ণ দিন। এই দিনে জন্ম নিয়েছিলেন বাঙালির মুক্তির মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যে কোনো পরাধীন জাতি ততক্ষণ পর্যন্ত স্বাধীনতার আস্বাদ গ্রহণ করতে পারে না যতক্ষণ না একজন বিচক্ষণ ও সাহসী রাষ্ট্রনায়ক এবং নেতার আগমন না ঘটে। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের জন্য এমনই একজন বিচক্ষণ, দূরদৃষ্টি সম্পন্ন ও সাহসী রাষ্ট্রনায়ক এবং নেতা হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিলেন যার জন্ম বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছিল।”

উপস্থিত প্রবাসী বাংলাদেশীদের পক্ষ থেকে জালাল উদ্দিন আহমেদ ও জনাব আব্দুল্লাহ আল মামুন বক্তব্য রাখেন। তারা বলেন, যতদিন বাংলাদেশ পৃথিবীর মানচিত্রে থাকবে ততদিন এই ১৭ মার্চ বাঙালির জন্য এক আনন্দময় দিন হিসেবে বিবেচিত হবে। জাতির জনকের জন্মদিনে প্রবাসীরা তাঁকে স্মরণ করছে শ্রদ্ধা ও ভালবাসায়। একটি স্বাধীন দেশ ও একটি পতাকার রূপকার মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি বাঙালি জাতি চির কৃতজ্ঞ, চিরদিন। 

অনুষ্ঠান শেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষ্যে কেক কাটা হয়।