• ঢাকা
  • রবিবার, ০১ আগস্ট, ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮
প্রকাশিত: জুন ২৬, ২০২১, ০৯:৫৫ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ২৯, ২০২১, ০২:১৩ পিএম

ফিনল্যান্ডের সিটি কাউন্সিল নির্বাচনে বাংলাদেশি তরুণের জয়লাভ

ফিনল্যান্ডের সিটি কাউন্সিল নির্বাচনে বাংলাদেশি তরুণের জয়লাভ
হিমেল ● সংগৃহীত

ফিনল্যান্ডের সিটি কাউন্সিল নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন বাংলাদেশের তরুণ হিজ্জাতুল আলম হিমেল। নির্বাচনে মোট প্রার্থী ছিলেন ১৪৮ জন। তাদের মধ্যে নির্বাচিত প্রার্থী ৪৩ জন।  নির্বাচনে প্রথম হয়েছেন সুইডিশ পিপল্‌স পার্টির চেয়ারম্যান এবং ফিনল্যান্ডের বর্তমান আইনমন্ত্রী আন্না মায়া হেরিকসেন। তার কম্পেয়ারিটিভ ইনডেক্স ৩৮৯৩০০০।

হিজ্জাতুল আলম হিমেল আছেন ২২তম অবস্থানে। তার কম্পেয়ারিটিভ ইনডেক্স ৩৫৩৯০৯। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী গ্রীন পার্টির আন্নি তেরিকংগাস এবং তার কম্পেয়ারিটিভ ইনডেক্স ৩৭১০০০।

এই সিটির নির্বাচনে ইতিহাসে হিমেলই প্রথম বাংলাদেশী তরুণ, যিনি ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাইরের দেশের প্রথম নির্বাচিত কাউন্সিলর। আগামী ১ আস্টে থেকে হিমেল তার দায়িত্ব গ্রহণ করবেন।

হিমেলের বাবা আলহাজ্ব খুরশেদ আলম ইতালিতে একজন ব্যবসায়ী ছিলেন এবং সবসময় সমাজসেবামূলক কাজে নিয়োজিত থাকতেন। বাবার সেই আদর্শ বুকে নিয়েই বড় হয়েছেন তিনি। নৈতিকতার কথা মাথায় রেখে আসন্ন সিটি নির্বাচনের আগে হিমেল বিভিন্ন দলের মূল্যবোধ মূল্যায়ন শুরু করেন।

সুইডিশ পিপলস্‌ পার্টিকেই একটি যোগ্য এবং উদার দল মনে হয় হিমেলের কাছে। তিনটি লক্ষ্য নির্ধারণ করে হিমেল তার নির্বাচনী প্রচার শুরু করেন। প্রবাসীসহ স্থানীয়দের জীবন মান উন্নয়ন, খেলাধুলায় তরুণদের আগ্রহী করা এবং সকলের জন্য নগরীকে আরও আকর্ষণীয় করে গড়ে তোলা। 

এক প্রতিক্রিয়ায় হিমেল বলেন, নিজের ইচ্ছের বিরুদ্ধেই উচ্চতর শিক্ষার উদ্দেশে বাবার পরামর্শে ফিনল্যান্ডে আসি। শুরুতে আমি ফুটবলে নিজের ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রতী ছিলাম। শুরুও করেছিলাম কিন্তু লিগামেন্ট ইঞ্জুরীর কারণে ফুটবল থেকে আমাকে সরে আসতে হয়। জ্যাকবস্তাদ শহর আমাকে মুগ্ধ করেছে। তাই পড়াশোনার পাশাপাশি রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হয়ে এই শহরকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেই।  

হিমেল আরও বলেন, ভোটার’রা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে। ভবিষ্যতে যারা জ্যাকবস্তাদ আসবে, তাদেরকে আরও সাহায্য করতে চাই। যারা আমাকে ভোট দিয়েছে এবং যারা আমাকে ভোট দেয়নি, আমি তাদের সকলের কণ্ঠস্বর হতে চাই।

সবাইকে এক সাথে নিয়ে উন্নয়নের পথে হাটতে আগ্রহ প্রকাশ করেন হিমেল।

জাগরণ/এসএসকে