• ঢাকা
  • সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: জুলাই ৩০, ২০১৯, ০২:১৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ৩০, ২০১৯, ০২:১৮ পিএম

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৬ শিক্ষার্থী ডেঙ্গু আক্রান্ত 

জবি সংবাদদাতা
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৬ শিক্ষার্থী ডেঙ্গু আক্রান্ত 

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) হল না থাকায় পুরান ঢাকার আশপাশে প্রায় ১০ হাজার শিক্ষার্থী মেস ভাড়া করে থাকে। আর এসব এলাকায় ডেঙ্গুর প্রকোপ বেশি হওয়ায় সহজেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এই ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে। এ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৪টি বিভাগের ৯৬ জন শিক্ষার্থী ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। যে কারণে ঈদের ছুটি ঘোষণার আগেই বহু শিক্ষার্থী বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তদের জন্য কোন চিকিৎসা ব্যবস্থা না থাকায় ঢাকার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন অনেকে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আইন বিভাগের ১১ জন, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সাতজন, প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ছয়জন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের পাঁচজন, নৃবিজ্ঞান বিভাগের পাঁচজন, ফার্মেসি বিভাগের চারজন, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের চারজন, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের চারজন, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের তিনজন, ইতিহাস বিভাগের তিনজন, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের তিনজন, গণিত বিভাগের তিনজন, ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন বিভাগের দুজন, সমাজকর্ম বিভাগের একজন, মার্কেটিং বিভাগের দুজন, পদার্থবিদ্যা বিভাগের দুজন, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চারজন, নাট্যকলা বিভাগের দুজন, মনোবিজ্ঞান বিভাগের দুজন, উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের দুজন, অ্যাকাউন্টিং বিভাগের একজন, অর্থনীতি বিভাগের দুজন, লোকপ্রশাসন বিভাগের দুজন, ইংরেজি বিভাগের একজন, সংগীত বিভাগের একজন, প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের একজন, রসায়ন বিভাগের একজন, বাংলা বিভাগের একজন, অনুজীব বিজ্ঞানের একজন, ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগের একজন, দর্শন বিভাগের একজন, মাইক্রোবায়োলজিতে একজন, বায়োকেমিষ্ট্রিতে একজন, ইংরেজি বিভাগে একজন ও সিএসই বিভাগের একজন শিক্ষার্থী ডেঙ্গুতে জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের তৃতীয় বর্ষের ডেঙ্গুতে আক্রান্ত শিক্ষার্থী জাহিদুল ইসলাম বলেন, 'ঢাকা শহরে শিক্ষার্থীদের মধ্যে আমরাই সবচেয়ে কষ্টে থাকি। আমাদের হল নেই তাই মেসে থাকতে হয়। পুরান ঢাকায় মেসে থাকতে প্রচুর কষ্ট হয় এবং আমরা সবচেয়ে বেশি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হচ্ছি।'

বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা নেই। বাধ্য হয়ে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত শিক্ষার্থীরা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, ঢাকা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালসহ বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারের সিনিয়র মেডিকেল অফিসার ডা. মিতা শবনম বলেন, 'প্রতিদিনই ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে শিক্ষার্থীরা এখানে আসছেন। আজকেও আমি মোট ৬০ জনের মত রোগী দেখেছি তার মধ্যে ৪০ জনই জ্বরের রোগী। ডেঙ্গু জ্বরের জন্য আলাদা কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে কিনা জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ডেঙ্গু নিয়ে আমাদের নতুন কোন চিন্তা ভাবনা নেই। আমরা প্রথমত নাপা খেতে বলি এবং হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেই।

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রকল্যাণ পরিচালক আবদুল বাকীর কাছে ডেঙ্গু জ্বরের জন্য কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে কিনা জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ‘ক্যাম্পাসে মশা মারার জন্য প্রতিদিন স্প্রে করা হয়। তিনি বলেন, ডেঙ্গুতে আক্রান্ত শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।’

কেএসটি
 

আরও পড়ুন