• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬
প্রকাশিত: জুলাই ৪, ২০১৯, ০২:০৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ৪, ২০১৯, ০২:০৮ পিএম

শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটের কার্যক্রম শুরু

‘পোড়া রোগীর সুচিকিৎসার জন্য এই হাসপাতাল বানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী’

জাগরণ প্রতিবেদক
‘পোড়া রোগীর সুচিকিৎসার জন্য এই হাসপাতাল বানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী’
‘শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক; ছবি- দৈনিক জাগরণ


চিকিৎসাসেবা কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে চালু হলো বিশ্বের বৃহত্তম বার্ন ইনস্টিটিউট ‘শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট’। আগুনে পোড়া রোগীদের সুচিকিৎসার জন্যই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই হাসপাতাল বানিয়েছেন বলে কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর চানখারপুল এলাকায় ১৩ তলা বিশিষ্ট এই বিশেষায়িত ইনস্টিটিউটের কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ম্যুরালে পুষ্পস্তবক দেওয়ার মাধ্যমে হাসপাতালের সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। 

এরপর হাসপাতালের সেবা কার্যক্রম ও বিভিন্ন বিভাগগুলো পরিদর্শন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। পরিদর্শন শেষে উদ্বোধনী আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশ নেন তিনি। এ সময় দেশের মঙ্গল কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

উদ্বোধনকালে মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ সময় বলেন, স্বাস্থ্যসেবাকে এগিয়ে নিতে হবে। এই বৃহৎ হাসপাতাল আপনাদেরই জন্য। বাংলাদেশে বড় বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অকাল মৃত্যু যেন না ঘটে এবং মানুষ যাতে বিশেষ করে পোড়া রোগীরা সুচিকিৎসা পায় সেজন্যই আজ এই হাসপাতাল তৈরি করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

আজ আনুষ্ঠানিকভাবে হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন হলেও আরও তিন দিন আগেই পরীক্ষামূলকভাবে এখানকার সেবা কার্যক্রম শুরু করা হয়।

এর আগে গত ২৫ জুন শেখ হাসিনা বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট চালুর কথা থাকলেও নির্মাণ কাজ সম্পন্ন ও আনুসাঙ্গিক প্রস্তুতি না থাকায় চালু করা সম্ভব হয়নি। 

গত বছরের ২৪ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫০০ শয্যার এই শেখ হাসিনা ন্যাশনাল বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট উদ্বোধন করেছিলেন। সেনাবাহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে দুই একর জমির উপর ৯১২ কোটি টাকা ব্যয়ে এটি নির্মিত হয়। বিদ্যুৎ সংযোগ সমস্যা, যন্ত্রপাতি স্থাপন ও জনবলের অভাবে এতদিন এটিতে চিকিৎসাসেবা চালু করা সম্ভব হয়নি।

১৮ তলাবিশিষ্ট এ ইনস্টিটিউটের মাটির নিচে তিনতলা বেজমেন্ট। সেখানে গাড়ি পার্কিং ও রেডিওলজিসহ আরও কয়েকটি পরীক্ষা-নিরীক্ষার বিভাগ রাখা হচ্ছে। ইনস্টিটিউটটিতে ৫০০টি শয্যা, ৫০টি ইনসেনটিভ কেয়ার ইউনিট, ১২টি অপারেশন থিয়েটার ও অত্যাধুনিক পোস্ট অপারেটিভ ওয়ার্ড রয়েছে।

বৃহৎ এ ভবনকে তিনটি ব্লকে ভাগ করা হয়েছে। একদিকে রয়েছে বার্ন ইউনিট, অন্যদিকে প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট আর অপর ব্লকে রয়েছে অ্যাকাডেমিক ভবন। এদেশে প্রথমবারের মতো এ সেবামূলক সরকারি হাসপাতালে হেলিপ্যাড সুবিধা রাখা হয়েছে।

এইচ এম/আরআই

আরও পড়ুন

Islami Bank