• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: অক্টোবর ২৭, ২০১৯, ০১:২৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২৭, ২০১৯, ০১:৫৮ পিএম

একেই বলে খেসারত

‘দত্তা’ থেকে ফেরদৌস আউট, সাহেব ইন

বিনোদন ডেস্ক
‘দত্তা’ থেকে ফেরদৌস আউট,  সাহেব ইন
ফেরদৌস-ঋতুপর্ণা

প্রায় মাস ছয়েক পর ‘দত্তা’র ভবিষ্যত নির্ধারিত হল। বদলে গেল ছবির ‘বিলাস বিহারী’। বাংলাদেশর চিত্রনায়ক ফেরদৌসের পরিবর্তে সাহেব চট্টোপাধ্যায়কে দেখা যাবে ‘দত্তা’-র বিলাস বিহারীর ভূমিকায়।

লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন ভারতে ছিলেন ফেরদৌস। আর সেই সময়েই রাজনৈতিক প্রচারে অংশ নেন বাংলাদেশের এই অভিনেতা। তারপরেই বিপত্তির সূত্রপাত। কাঁটাতারের ভেদাভেদ মুছে দর্শকদের মন জয় করা অভিনেতাই বিশ্বের সর্ববৃহৎ গণতন্ত্রের উৎসবে ‘প্রচার করে’ রীতিমতো বিপাকে পড়েছিলেন। এতটাই, যে তার ভিসা বাতিল করে দিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এই সিদ্ধান্তেই অনিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল ‘দত্তা’-র ভবিষ্যত। ছবির কাজ অসম্পূর্ণ রেখেই পত্রপাঠ বাংলাদেশে ফিরে গিয়েছিলেন অভিনেতা। মাত্র ২০ শতাংশ এগিয়েছিল ছবির কাজ, বাকিটাতে হাত দিতে পারছিলেন না পরিচালক। তাই এই সিদ্ধান্ত। বাংলাদেশ থেকে এদেশে আসতে পারবেন না ফেরদৌস, তাই পরিবর্তন এল বিনোদ বিহারী চরিত্রে। ডিসেম্বরে শুটিং শুরু হবে ফেরদৌস অভিনীত অংশের।

শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের উপন্যাস ‘দত্তা’ অবলম্বনে বাংলা ছবি। ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে পরিচালক নির্মল চক্রবর্তী বললেন, ‘বোলপুরে নয়, আশেপাশে কোনও মানানসই জায়গাতেই শুট হবে। ইচ্ছে রয়েছে ডিসেম্বরেই পুরো ছবি শুট করে নেয়ার। বাকিটা নির্ভর করছে শিল্পীদের ডেট দেয়ার ওপর।’

প্রায় ৪০ বছর আগে ১৯৭৮ সালে বাংলাতেই অজয় করের পরিচালনায় মুক্তি পেয়েছিল আরেক ‘দত্তা’। সেখানে কিংবদন্তী নায়িকা সুচিত্রা সেনকে দেখা গিয়েছিল বিজয়ার চরিত্রে। ছবিতে তার সঙ্গে ছিলেন শমিত ভঞ্জ, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়রা। এবারের ‘দত্তা’-র পরিচালনার দায়িত্ব কাঁধে নিয়েছেন নির্মল চক্রবর্তী।

ছবিতে ঋতুপর্ণা ছাড়াও রয়েছেন জয় সেনগুপ্ত এবং রাসবিহারীর ভূমিকায় দেখা যাবে বর্ষীয়ান চরিত্রাভিনেতা বিশ্বজিৎ চক্রবর্তীকে। সাহেব চট্টোপাধ্যায়কে দেখা যাবে শিলাদিত্য মৌলিকে ‘হৃৎপিণ্ড’ ছবিতেও।

এসএমএম

আরও পড়ুন