• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৯, ২০২১, ১০:৫৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২২, ২০২১, ০১:৩০ পিএম

যেভাবে এলো সাত দিনের নাম

যেভাবে এলো সাত দিনের নাম

আমাদের সপ্তাহ শুরু হয় শনিবার দিয়ে, আর শেষ হয় শুক্রবার। এর মাঝে রয়েছে আরো পাঁচ দিন। প্রতিটি দিনেরই রয়েছে আলাদা আলাদা নাম। সপ্তাহের এই সাত দিনের নাম আমাদের সকলকেই শিশুকালে শেখানো হয়। কিন্তু কখনো কি ভেবে দেখেছেন কীভাবে এই সাতদিনের নামকরণ করা হলো বা কোথায় থেকে এই নাম এলো?

আগেকার দিনের মানুষের প্রাত্যহিক জীবনে দেব-দেবীরা ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে ছিলেন। তাদের প্রভাব এতটাই ছিল যে মানুষ তাদের নাম নিয়ে দিনের শুরু করতে এবং শেষও করতো তাদের স্মরণ করে। তাই সপ্তাহের সাত দিনের নামও রাখা হয় তাদের স্মরণে। প্রাচীন সমাজের মানুষরা মনে করতো এতে তাদের ভালো হবে।

চলুন জেনে নেয়া যাক সপ্তাহের সাত দিনের আলাদা আলাদা নামকরণের ইতিহাস।

শনিবার (Saturday): শৌর্য-বীর্যের প্রতীক রোমান দেবতা ‘স্যাটার্ন’ এর নামানুসারে এই দিনের নামকরণ করা হয়। তাই শনিবারের আরেক নাম স্যাটার্ন’স ডে। ল্যাটিন ভাষায় এই দিনটিকে ‘ডায়েস স্যাটার্নি’ (dies saturni) বলা হয়।

রবিবার (Sunday): সানডে শব্দটি গ্রীক ও ল্যাটিন ভাষা থেকে উদ্ভব হয়। যার অর্থ হলো সূর্যের দিন। ‘সূর্য’ দেবতাকে স্মরণ করেই এই নামকরণ। ফ্রেঞ্চ ও স্প্যানিশ ভাষায়ও সানডে’র অর্থ একই। তবে খ্রিস্টানরা এই দিনটিকে ‘ঈশ্বরের দিন’ বা ‘লর্ডস ডে’ এবং ইহুদীরা ‘সাব্বাত ডে’ হিসেবে পালন করে।

সোমবার (Monday): ‘চন্দ্রদেবী’র নামানুসারে ‘মানডে’র নামকরণ করা হয়। যার অর্থ ‘মুন’স ডে বা চন্দ্রদিন। ল্যাটিন ভাষায় এই দিনটিকে ‘ডায়েস লুনি’ (dies lunae), গ্রীক ভাষায় ‘হেমেরা সেলেনস’ (hemera selenes), স্প্যানিশ ভাষায় ‘লুনস গেস’ (lunes Ges) এবং ফ্রেঞ্চ ভাষায় ‘লুন্ডি’ (lundi) বলা হয়। যার সবগুলোর অর্থই একই।

মঙ্গলবার (Tuesday): এই দিনটির নামকরণ করা হয় ঈশ্বরের নামে। যুদ্ধ ও আকাশের দেবতা ‘টুই’ (Tiu) অথবা ‘টিয়া’ (Twia) এর নামে দিনটির নামকরণ করা হয়। একে ল্যাটিন ভাষায় ‘ডায়েস মেরিটসও’ (dies mertis) বলা হয়ে থাকে। আর গ্রীক ভাষায় বলা হয় ‘হেমেরাস এরিওস’ (hemera areos) বলা হয়।

বুধবার (Wednesday): ‘ওডিন’ নামক একজন দেবতার নাম থেকে এই দিনের নামকরণ করা হয়। তার নামানুসারে একে ‘ওডেন’স ডে-ও বলা হয়। স্প্যানিশ ভাষায় একে বলা হয় ‘মাইরকোলস’ (Miercoles) এবং ফ্রেঞ্চ ভাষায় একে বলা হয় ‘মারক্রেডি’ (Mercredi)।

বৃহস্পতিবার (Thursday): বজ্র ও বিজলির দেবতা ‘থর’-এর নামে এই দিনটির নামকরণ করা হয়। দিনটিকে ল্যাটিন ভাষায় ‘জুপিটার’ এবং গ্রীক ভাষায় ‘জিউস’ বলা হয়।

শুক্রবার (Friday): সপ্তাহের শেষ দিনের নামকরণ করা হয় বিয়ে এবং উর্বরতার দেবী ‘ফ্রিয়ার’ (frreyar) নামে। ল্যাটিন ভাষায় এই দিনটি দেবী ‘ভেনাসে’র (Venus) এর নামে এবং গ্রীক ভাষায় দেবী ‘এফ্রোডাইটে’র (Aphrodite) নামে পরিচিত।