• ঢাকা
  • রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮
প্রকাশিত: জুলাই ১৯, ২০২১, ০১:১০ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ১৯, ২০২১, ০১:১৩ এএম

আপেলের বীজ থাকে মারাত্মক বিষ সায়ানাইড

আপেলের বীজ  থাকে মারাত্মক বিষ সায়ানাইড

আপেল খাওয়ার সময়ে সবাই সতর্ক হয়ে খান, যাতে বীজটি না পেটে চলে যায়। পেটে যাওয়া তো এক রকম, দাঁতের নীচে পড়লেই বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায় আপেলের বীজ। কারণ তিতকুটে স্বাদ।

কিন্তু আপেলের বীজ পেটে গেলে কি কোনও ক্ষতি হতে পারে?

আপেলের বীজে অ্যামিগডালিন নামের যৌগ থাকে। বীজ যদি সরাসরি পেটে চলে যায়, তা হলে তা ততটাও বিপজ্জনক নয়। কারণ পেটে এই বীজ হজম হয় না। মলের সঙ্গে শরীর থেকে বেরিয়ে যায়। কিন্তু যদি দাঁতের চাপে এই বীজ ভেঙে যায়? তা হলে তা থেকে হাইড্রোজেন সায়ানাইড নামক উপাদান বেরিয়ে আসে। যা শরীরে বিষক্রিয়া ঘটাতে পারে।

তা হলে কী আপেলের বীজ চিবিয়ে ফেললেই বিপদ? তা নয়। কারণ প্রতিটি বীজে অত্যন্ত সামান্য পরিমাণে এই সায়ানাইড থাকে। সেটি মারাত্মক বিষক্রিয়া ঘটাতে পারে না।

কতগুলি আপেলের বীজ খেয়ে ফেললে সমস্যা হতে পারে?

কতগুলি আপেলের বীজ খেয়ে ফেললে সমস্যা হতে পারে?

একজন প্রাপ্ত বয়স্ককে অন্তত ২০০টি বীজ চিবিয়ে খেতে হবে। বা অন্তত গোটা ৪০ আপেলের মাঝের অংশটা খেয়ে ফেলতে হবে। তা না হলে বড় বিপদের আশঙ্কা নেই। তবে শিশু বা পোষ্যদের ক্ষেত্রে এর অনেক কম পরিমাণ বীজই বিষক্রিয়া ঘটাতে পারে।

তবু আপেলের বীজ খেতে বারণই করেন চিকিৎসকরা। কারণ এটি শরীরের কোনও উপকারে লাগে না। আনন্দবাজার।

জাগরণ/এম