• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৮, ২০২০, ০৫:০২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ১৮, ২০২০, ০৫:১৭ পিএম

জুমে আনলিমিটেড কথা বলার সুযোগ

জুমে আনলিমিটেড কথা বলার সুযোগ

বড়দিন ও নববর্ষ উদযাপনের জন্য আনলিমিটেড কথা বলার সুযোগ দিচ্ছে ভিডিও কনফারেন্সের জনপ্রিয় অ্যাপ জুম। করোনাকালে বিশ্ববাসীকে উৎসবের আমেজ দিতেই এ অভিনব অফার।

করোনা মহামারিতে বিশ্বের বেশির ভাগ দেশের মানুষই অফিসের কাজ করছেন ঘরে বসে। অফিসের মিটিং থেকে শুরু করে শিক্ষার্থীদের পাঠদান, অনলাইন ক্লাস থেকে শুরু করে সভা-সেমিনার সবই হচ্ছে ইন্টারনেটের ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে। আর এসবের জন্য ব্যবহার হচ্ছে জুম, গুগল মিট, ফেসবুক লাইভ, স্ট্রিমইয়ার্ড, আর ইউটিউবের ভিডিও কনফারেন্স করার মাধ্যমগুলো। এর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়তা পেয়েছে জুম অ্যাপটি।

তবে জুম অ্যাকাউন্ট থেকে বিনা মূল্যে একটানা মাত্র ৪০ মিনিট কথা বলতে পারেন ব্যবহারকারীরা। ফলে ৪০ মিনিট পর নতুন করে আবারো মিটিংয়ে যুক্ত হতে হয় সবাইকে। বাধাহীনভাবে কথা বলতে খরচ করতে হয় নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ। কিন্তু ডিসেম্বরে এ সুযোগ বিনা মূল্যে পেতে পারেন গ্রাহকরা। বড়দিন, হানুকা ও নববর্ষ উপলক্ষে দুই সপ্তাহের জন্য আনলিমিটেড কথা বলা যাবে জুমে। দ্য গার্ডিয়ানসহ আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরেও এসেছে এই তথ্য।

ইহুদিদের ধর্মীয় উৎসব হানুকা উপলক্ষে বাংলাদেশ সময় ১৭ ডিসেম্বর রাত ৯টা থেকে ১৯ ডিসেম্বর বিকেল ৫টা পর্যন্ত, বড়দিন উপলক্ষে ২৩ ডিসেম্বর রাত ৯টা থেকে ২৬ ডিসেম্বর বিকেল ৫টা এবং খ্রিষ্টীয় নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে ৩০ ডিসেম্বর রাত ৯টা থেকে ২ জানুয়ারি বিকেল ৫টা পর্যন্ত সীমাহীন কল করা যাবে জুম মিটিং অ্যাপ থেকে।

তবে জুম এবারই প্রথম এমন অফার দিচ্ছে, তা কিন্তু নয়। এর আগে ২৬ নভেম্বর ‘থ্যাংকস গিভিং ডে’তেও এমন সুযোগ দিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। এক বিবৃতিতে জুম জানায়, করোনা মহামারিতেও পরিবার-পরিজন, আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে উৎসবের আনন্দ ভাগাভাগির সুযোগ দিতেই এমন উদ্যোগ নিয়েছে তারা। ঘরে বসে সবার সঙ্গে নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ থাকায় সংক্রমণের ঝুঁকিও কমবে।
জুমের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, করোনাকালে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা জরুরি। উৎসবের সময় জনসমাগম থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে। জুমের এমন উদ্যোগ মানুষকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সবার সঙ্গে যোগাযোগ করতে সুযোগ দেবে।