• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২, ২০১৯, ১২:০৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ২, ২০১৯, ১২:২৮ পিএম

১ বছরের জন্য নিষিদ্ধ মোহাম্মদ শহীদ

ক্রীড়া ডেস্ক
১ বছরের জন্য নিষিদ্ধ মোহাম্মদ শহীদ

গত মাসে ২১তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) ষষ্ঠ ও শেষ রাউন্ডের খেলায় খুলনায় মুখোমুখি হয় ঢাকা বিভাগ ও খুলনা বিভাগ। ম্যাচ চলাকালে পেসার মোহাম্মদ শহীদ ও আরেক পেসার শাহাদাত হোসেন ২৪ বছর বয়সী সতীর্থ ক্রিকেটার আরাফাত সানিকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। 

আরাফাতকে বলের এক পিঠ ঘষে দিতে বললে তিনি অস্বীকৃতি জানান। এতে চটে যান শহীদ। আরাফাতকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন তিনি। এরপর সানিকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন শাহাদাতও। যদিও শহীদের বিষয়টি শুরুতে আলোচনায় আসেনি। তবে পরে জানা গেছে এই ঘটনার মূল হোতা আরেক পেসার মোহাম্মদ শহীদ।

গত ১৭ নভেম্বর ঘটে যাওয়া সেই ঘটনা নিয়ে বিসিবিতে রিপোর্ট জমা দেন ওই খেলার ম্যাচ রেফারি শিপা। বিসিবির টুর্নামেন্ট টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান মিনহাজুল আবেদিন নান্নু আগেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, ঘটনার সূত্রপাত ঘটানো আরেক পেসার মোহাম্মদ শহীদও পড়তে পারেন বড় শাস্তির মুখে। 

তবে শেষ পর্যন্ত শাস্তি পেলেন মোহাম্মদ শহীদ। তাকে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা প্রদান করেছে বিসিবি। একই শাস্তি পেয়েছেন শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হওয়া আরাফাত সানি জুনিয়র। 

এর আগে জাতীয় লীগের ম্যাচে খুলনা বিভাগের বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ের সময় সতীর্থ আরাফাত সানি জুনিয়রকে মারধর করার অপরাধে বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেসার শাহাদাত হোসেন রাজীবকে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে বিসিবি। এর মধ্যে ২ বছর স্থগিত নিষেধাজ্ঞা। একইসঙ্গে তাকে ৩ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে। 

আরআইএস