• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২৪, ১২:০৮ এএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২৪, ১২:০৮ এএম

সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ

বাংলাদেশ-ভারত যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন

বাংলাদেশ-ভারত যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন
ছবি ● সংগৃহীত

পূর্ণ ৯০ মিনিট। সঙ্গে ২২ গোলের টাইব্রেকার। ম্যাচের সময়সীমা শত মিনিটের বেশি! সাফের ফাইনালে আজ যা যা ঘটলো তা যেমন চোখের শান্তি, গায়ে কাটা দিয়েছেও বৈকী। আরে হচ্ছে কী, হয়ত বলেছেন কেউ কেউ। পরতে পরতে নাটকীয়তা আর রোমাঞ্চতা। সবিশেষ টসে ভাগ্য নির্ধারণ। বাইলেজ লঙ্ঘন। বাংলাদেশের বিপরীতে ফল- আবেদন। ক্ষণিকেই ফের তা বদল। ম্যাচ কমিশনের সিদ্ধান্ত-গ্যাঞ্জাম। কত কী!

ফেব্রুয়ারির ৮ তারিখ। স্থান- কমলাপুর স্টেডিয়াম। নিশ্চিত দীর্ঘদিন বৃহস্পতির এই রাতটি  স্মরণ করলেই পুড়বে ভারতীয়রা।  কারণ, ম্যাচ শেষে ‘উফ’ আর দীর্ঘশ্বাস ছাড়া কিছুই যে প্রাপ্তি ছিল না তাদের। সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের কাছে শিরোপা ভাগাভাগিতে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে ভারত নন্দিনীদের।

এদিন নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা ১-১ গোলে অমীমাংসিত থাকেন। এরপরই টাইব্রেকারে গড়ায় ম্যাচ। এখানেও নাটকীয়তা। সাডেন ডেথে গড়ানো টাইব্রেকার ১১-১১ গোলে অমীমাংসিত থাকে। 

নাটকীয়তা জোরালো হয় ঠিক ওখান থেকেই। ম্যাচের শ্রীলঙ্কান কমিশনার ডি সিলভা জয়সুরিয়া দিলান শিরোপা নির্ধারণে টস করার সিদ্ধান্ত নেন। যা ভারতের পক্ষে যায়। কিন্তু, সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করে বাংলাদেশ। 

স্বাগতিকদের আপত্তিতে ম্যাচ কমিশনার খেলোয়াড়দের মাঠে ফেরত আনেন। কিছুক্ষণ পরই মাঠ ছেড়ে যায় ভারত। ঘণ্টা চারেকের রুদ্ধশ্বাস মুহূর্ত শেষে আয়োজক কমিটি দুই পক্ষকে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করে।

জাগরণ/খেলা/সাফঅনূর্ধ্ব-১৯নারীচ্যাম্পিয়নশিপ/এসএসকে