• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১, ৭ বৈশাখ ১৪২৮
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১, ০৫:১৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১, ০৫:১৪ পিএম

শারীরিক নির্যাতন করলেই আজীবন নিষিদ্ধ কোচ! 

শারীরিক নির্যাতন করলেই আজীবন নিষিদ্ধ কোচ! 

আসন্ন টোকিও অলিম্পিক নিয়ে বেশ শোরগোল চলছে। সম্প্রতি নারীদের ব্যাপারে বেফাঁস মন্তব্য করার কারণে আয়োজক কমিটির প্রধানকে পদও ছাড়তে হয়েছে। এবার কিছুটা কঠিন নিয়ম আসতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্যের অ্যাথলেটদের জন্যও। শারীরিকভাবে কিংবা যৌন নির্যাতন প্রমাণিত হলে আজীবন নিষিদ্ধ হবেন সেই কোচ, এমনটিই শোনা যাচ্ছে। 

সম্প্রতি একটি ক্যাম্মপেইনে এমন আবেদন জানিয়েছেন বেশ কয়েকজন অ্যাথলেট। আনা গর্ডন, কেট সিয়ারি এবং এমহাইরি ম্যাকক্লেনান কিছুদিন আগেই যুক্তরাজ্য অ্যাথলেটিকসের প্রধান নির্বাহী জোয়ানা কোটসের কাছে ২০০০ জনের সাক্ষরিত একটি চিঠি জমা দেন যেখানে শারীরিক নির্যাতনের জন্য স্বল্প সময়ের নিষেধাজ্ঞার নিয়ম পরিবর্তনের আবেদন করা হয়। কোটস নিশ্চিত করেছেন, আগামী সভায় বোর্ডের সামনে এটি তিনি উপস্থাপন করবেন এবং প্রস্তাবটি পাশ হলে মাত্র চার থেকে ছয় সপ্তাহের মধ্যেই তা কার্যকর হবে। এই নিষেধাজ্ঞা অনুসারে স্বল্প সময়ের পরিবর্তে আজীবন নিষেধাজ্ঞা বয়ে বেড়াতে হবে দোষী কোচদের। এই দাবির সঙ্গে একমত পোষণ করে কোটস বলেন, “আমি এমন সংস্থা চালাতে পারবোনা যেখানে মানুষ অনিরাপদ বোধ করে।” 

সেই চিঠিতে ব্রিটিশ অ্যাথলেট জাযমিন সিউয়ারস, হানাহ ইংল্যান্ড এবং অ্যাডেলি ট্রেসির সাক্ষরও ছিলো, যারা একই আইন পরিবর্তন চান। ওয়েলশ ইনডোর ১৫০০ মিটার চ্যাম্পিয়নশিপ বিজয়ী সিয়ারি বলেন, “এভাবে চলতে দেয়া যায়না। সাক্ষর দেখেই বোঝা যাচ্ছে, অনেক কোচ নিয়মের মধ্যে থাকছেন না।” এদিকে আসন্ন পরিবর্তনের ব্যাপারে কোটস বলেন, “যৌন হয়রানি, শারীরিক নির্যাতন এবং ফৌজদারী অপরাধ করে থাকলে সেই কোচদের আজীবন নিষেধাজ্ঞার আওতায় রাখা হবে।” 

বেশ কিছুদিন ধরেই যুক্তরাজ্যের  নারী অ্যাথলেটরা শারীরিক এবং যৌন নির্যাতনের ব্যাপারে প্রতিবাদী হয়েছেন। এবার নীতিতে এমন ইতিবাচক পরিবর্তন বেশ স্বস্তি দিবে তাদের।