• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮
প্রকাশিত: আগস্ট ৩, ২০২১, ০৪:৪৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ৩, ২০২১, ০৪:৫৯ পিএম

অলিম্পিক ফুটবলের ফাইনালে ব্রাজিল

অলিম্পিক ফুটবলের ফাইনালে ব্রাজিল

মেক্সিকোকে টাইব্রেকারে  ৪-১ গোলে হারিয়ে অলিম্পিকের পুরুষদের ফুটবলের ফাইনালে উঠেছে বর্তমান গোল্ড মেডেলিস্ট ব্রাজিল।

অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক ধরে রাখার লক্ষ্য নিয়ে টোকিওয় এসেছে দানি আলভেজের নেতৃত্বাধীন ব্রাজিল ফুটবল দল। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে ব্রাজিলের সামনে মেক্সিকো শক্তিশালী প্রতিপক্ষই ছিল। অলিম্পিক ফুটবলে বরাবরই মেক্সিকো কঠিন একটি দল। সেটার প্রমাণও মিলেছে মাঠে।

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) জাপানের কাসিমা স্টেডিয়ামে ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মেক্সিকোর শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বীতার মুখে পড়ে ব্রাজিলিয়ানরা। প্রথমার্ধে তো গোল হয়ইনি, বরং দ্বিতীয়ার্ধেও ব্রাজিল-মেক্সিকো কেউ কারো জালে বল প্রবেশ করাতে পারেনি।

ম্যাচের শুরু থেকে চাপ তৈরি করা ব্রাজিল দশম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো। তবে গিলেরমো আরানার ছয় গজ বক্সের বাঁ থেকে নেওয়া শট রুখে দেন ৩৬ বছর বয়সী অভিজ্ঞ গোলরক্ষক গিলেরমো ওচোয়া।

২৮তম মিনিটে মেক্সিকোর ডি-বক্সে তাদের এক ডিফেন্ডারের চ্যালেঞ্জে দগলাস লুইস পড়ে গেলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। পরে অবশ্য ভিএআরের সাহায্যে পাল্টান সিদ্ধান্ত।

ধীরে ধীরে গুছিয়ে ওঠা মেক্সিকো বিরতির ঠিক আগে সুবর্ণ সুযোগ পায়। কিন্তু ডি-বক্সে ফাঁকায় বল পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি উরিয়েল আন্তুনা। তার শট গোলরক্ষককে ফাঁকি দিলেও ছুটে আসা ডিফেন্ডার দিয়েগো কার্লোসে প্রতিহত হয়।

৭৫তম মিনিটে একটি ফাউলের ঘটনায় দুই পক্ষ অহেতুক ধাক্কাধাক্কিতে জড়িয়ে পড়ে। রেফারি এসে পরিবেশ শান্ত করেন।

গ্রুপ পর্বে পাঁচ গোল করা রিশার্লিসন ৮২তম মিনিটে ব্যবধান গড়ে দেওয়ার দারুণ সুযোগ পান, কিন্তু দুর্ভাগ্য বাধ সাধে। দানি আলভেসের ক্রসে ঝাঁপিয়ে এভারটন ফরোয়ার্ডের হেড পোস্টের ভেতরের দিকে লেগেও ভেতরে যায়নি।

৯০ মিনিটে অমিমাংসীত থাকার ফলে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত ৩০ মিনিটে। ১২০ মিনিটের খেলা অমিমাংসীত থাকার পর টাইব্রেকারে মাথা থান্দা রেখে নিজেদের জাত চেনায় সেলেসাওরা।

দানি আল্ভেজের নেয়া শট ডান দিকে ঝাপিয়ে পড়ে বাঁচাতে পারেননি মেক্সিকোর কিংবদন্তী গোলরক্ষক অচোয়া। লিড পায় ব্রাজিল। অচোয়া না পারলেও পেরেছেন ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক সান্তোস। তিনি এদুয়ার্দো এগুইরের শট ঠেকিয়ে দেন। 

দ্বিতীয় শটে গ্যাব্রিয়েল মারতিনেল্লি নিখুঁত শটে বল জালে জড়ালেও জোহান ভাস্কুয়েজের কিক বারে লেগে ফিরে আসলে ব্রাজিল ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকে। 

এরপর তৃতীয় শটে ব্রুনো গুইমারায়েস গোল করলে ব্রাজিল জয়ের পথে অনেকটাই এগিয়ে যায়। কার্লোস রদ্রিগেজ মেক্সিকোর হয়ে তৃতীয় শটে গোল পেলেও ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে। চতুর্থ শটে রেইনিয়ের গোল করার সঙ্গে সঙ্গে ফাইনালে যাওয়ার আনন্দে ভেসে যায় ব্রাজিল।