• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২, ০১:০৪ এএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২, ০১:০৫ এএম

যেসব পরিবর্তন আসছে ক্রিকেটে

যেসব পরিবর্তন আসছে ক্রিকেটে
ফাইল ফটো

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ক্রিকেটে বেশ কিছু পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা আইসিসি। বোলারদের বলে থুতু দেয়া, রান আউট, ক্যাচ আউটসহ একাধিক নিয়মের বদল আনছে আইসিসি।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) আসিসির নির্বাহী কমিটির এক বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত হয়। ১ অক্টোবর থেকে ক্রিকেটের নতুন এসব নিয়ম চালু হবে বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। অর্থাৎ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলা হবে নতুন নিয়মেই।

বলে থুতু মাখানো নিষিদ্ধ
ক্রিকেট বলে থুতু মাখানো এখন থেকে পুরোপুরি নিষিদ্ধ। বোলার হাতে বল নিয়েই বলে থুতু মাখানোর দৃশ্য অনেক পরিচিত। কিন্তু করোনা মহামারির সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রিকেট চালু করতে ২০২০ সালের মে মাস থেকে বলে থুতু মাখানো সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ করেছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা (আইসিসি)। সাময়িক সেই নিষেধাজ্ঞাকে এবার স্থায়ী করেছে আইসিসি।

মানকাড পদ্ধতিতে রান আউট
বোলার বল ছাড়ার আগে নন-স্ট্রাইকার প্রান্তে থাকা ব্যাটসম্যান বেরিয়ে এলে তাকে আউট করা অনেক দিন ধরেই খেলোয়াড়ি চেতনার বিরোধী বলে বিবেচনা করা হচ্ছিল। ক্রিকেট-বিশ্বে এই আউটটি ‘মানকাড’ নামে পরিচিত। ১৯৪৮ সালে সিডনি টেস্টে ভারতীয় বোলার ভিনু মানকড় এই কৌশলে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান বিল ব্রাউনকে আউট করেছিলেন। এ আউট নিয়ে বিতর্ক হয়েছে অনেক। এবার আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে আইসিসি নির্বাহী কমিটি এই আউটটি আর চেতনাবিরোধী নয় বলে জানিয়েছে। এখন থেকে এই আউটটি সাধারণ রানআউট হিসেবেই বিবেচিত হবে।

নতুন ব্যাটারের স্ট্রাইক
কোনও ব্যাটসম্যান ক্যাচ আউট হলে তার বদলে নামা ব্যাটসম্যান খেলবেন স্ট্রাইকারের দিকে। ক্যাচ নেওয়ার আগে ক্রিজের অপর প্রান্তে চলে গেলেও নতুন ব্যাটসম্যান ব্যাট করতে হবে। এক মাত্র ওভারের শেষ বলে ক্যাচ আউট হলে নতুন ব্যাটসম্যান-স্ট্রাইকারের দিকে নামবেন।

নতুন ব্যাটার নামার নির্ধারিত সময়
টেস্ট এবং এক দিনের ক্ষেত্রে এক জন ব্যাটসম্যান আউট হওয়ার পর নতুন ব্যাটসম্যান দু’মিনিট সময় পাবেন ক্রিজে এসে ব্যাট করার জন্য তৈরি হতে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ক্ষেত্রে সময় দেওয়া হবে মাত্র ৯০ সেকেন্ড।

পিচের বাইরে ব্যাট করলে ডেড বল
এক জন ব্যাটসম্যান যদি ব্যাট করার সময় পিচের বাইরে চলে যান তা হলে সেটাকে ‘ডেড বল’ হিসাবে ধরা হবে। কোনও বল যদি ব্যাটাসম্যানকে বাধ্য করে ব্যাটসম্যানকে পিচের বাইরে যেতে তা হলে সেটাকে ‘নো বল’ ধরা হবে।

বল করার সময় নড়াচড়া
এক জন বোলার যখন বল করছেন, সেই সময় কোনও ফিল্ডার যদি জায়গা বদল করেন বা ইচ্ছাকৃত ভাবে নড়াচড়া করা হয় তা হলে ব্যাটিং সাইডকে পাঁচ রান পেনাল্টি হিসাবে দেয়া হবে। বলটিকেও ‘ডেড বল’ ধরা হবে।

রান আউটের নিয়ম বদল
বল করার সময় স্ট্রাইকে থাকা কোনও ব্যাটসম্যান যদি ক্রিজে বাইরে চলে আসেন তা হলে বোলার বল ছুড়ে রান আউট করতে পারতেন। এখন সেটা হলে ‘ডেড বল’ বলা হবে।

হাইব্রিড পিচ
এত দিন শুধু মেয়েদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে হাইব্রিড পিচে খেলার নিয়ম ছিল। এখন থেকে ছেলেদের ক্রিকেটেও (শুধু সাদা বলের ক্রিকেটে) হাইব্রিড পিচ ব্যবহারের অনুমতি দিল আইসিসি। হাইব্রিড পিচ হল কৃত্রিম ভাবে তৈরি পিচ যেখানে প্রাকৃতিক ভাবে ঘাস গজায়।

জাগরণ/খেলা/ক্রিকেট/এসএসকে