• ঢাকা
  • বুধবার, ০৪ আগস্ট, ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮
প্রকাশিত: জুন ১৫, ২০২১, ১২:৪৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ১৫, ২০২১, ০৬:৪৫ এএম

ডিভোর্সের পর যে ভুলগুলো করবেন না

ডিভোর্সের পর যে ভুলগুলো করবেন না

জীবনসঙ্গীর সঙ্গে বোঝাপড়াটা যখন মেলে না তখনই ডিভোর্স বা বিচ্ছেদের পথে হাটেন। হাজারো চেষ্টায় সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা সম্ভব হয় না। কষ্ট চেপে নিয়েই দুইমুখী হয়ে পথচলা শুরু হয়। কিন্তু ডিভোর্সের পর শুধু মানসিকভাবেই হেয় হয়ে অনেকটা ক্লান্ত হয়ে পড়েন অনেকেই। সমাজের নানা প্রশ্ন, চারপাশে নিজেকে গ্রহণযোগ্য করে তোলার চেষ্টায় শুরু হয় প্রতিযোগিতা। ওই সময়টা, অল্প কিছু ভুলের কারণে আপনার কষ্টের পরিমাণটা বেড়ে যেতে পারে। সেই ভুলগুলোকে শুধরে নিয়ে এখনই নতুন পথচলাকে মসৃন করার চেষ্টা করুন।

ডিভোর্স বা বিবাহ বিচ্ছেদের পর যে ভুলগুলো একেবারেই করা যাবে না তা জানাব এই আয়োজনে।

নিজেকে সংযত রাখুন

কারোর প্ররোচনায় পা না দিয়ে বরং নিজেকে সংযত রাখুন। অনেকেই নানাভাবে খোঁচাবেন। নানা বুদ্ধি দিবেন। উত্ত্যক্ত করার চেষ্টা করবেন। ভুলেও এমন কোনও ফাঁদে পা দিবেন না। যারা উত্ত্যক্ত করেন তাদের থেকে দূরে থাকুন। কোনোভাবেই পাত্তা দেওয়া চলবে না।

দুঃখ প্রকাশ নয়

ডিভোর্সের পর বন্ধুরা বা পরিবারের স্বজনরা  শান্তনা দিবেন। কারো কাছেই নিজের দুঃখ প্রকাশ করবেন না। সবাইকে বুঝতে দিন আপনার সিদ্ধান্ত আপনি চিন্তা করেই নিয়েছেন। তাদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করলে তারাও চিন্তিত হবেন। আপনার কষ্টটা আরও বাড়বে।

ভালো থাকার চেষ্টা করুন

যা করতে ইচ্ছে হয়, যেখানে যেতে ইচ্ছে হয় তাই করুন। নিজের মধ্যেই নিজের ভালো লাগা খুঁজে নিন। নিজেকে সময় দিন। নিজেকে নিয়ে ভালো থাকুন। নিজের পরিবারকে সময় দিন। তাদের নিয়ে ভালো থাকুন। 

শেয়ার করা বন্ধ করুন

কারো সঙ্গেই বেশি কথা শেয়ার না করাই ভালো। আপনি যেভাবে বলছেন, অন্যজন বিষয়টি অন্যভাবেও নিতে পারে।  কার মনে কী চলছে তা  বোঝা দায়। আপনার বলা কথা ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে যেতে বেশি সময় লাগবে না। তাই নিজের ব্যক্তিগত কথা নিজের কাছেই রাখুন।

মদ্যপান নয়

খুব খারাপ লাগলে ভুলেও মদ্যপানে আসক্ত হবেন না। দুঃখবিলাস করতে গিয়ে নিজেকে অ্যালকোহলে ডুবিয়ে ফেলবেন না। কিংবা কোনও খারাপ নেশা নয়। নিজের জীবনকে নষ্ট করবেন না। এই সময়টাকে ব্যস্ত থাকুন। প্রয়োজনে পছন্দের মানুষদের সঙ্গে আড্ডা দিন। খারাপ লাগা থেকে বেরিয়ে আসতে নিজেকে একা রাখবেন না। বরং বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটিয়ে প্রতিদিনের কাজগুলো স্বাভাবিক রাখুন।

শখের কাজগুলো করুন

শখের কাজগুলো চালিয়ে যান। কোনও কাজ বন্ধ রাখবেন না। যে কাজগুলো আগে করার সময় হয়নি সেই কাজগুলো করে নিন। খুব কাছের বন্ধুদের সঙ্গে মিশুন। গান শুনুন। ইচ্ছে হলে লং ড্রাইভেও যেতে পারেন। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটান। দেখবেন অনেক ভালো থাকবেন।  এই সময়টা মনকে ভালো রাখা খুব জরুরি।

অপছন্দের মানুষকে এড়িয়ে যান

ডিভোর্সের পর অপছন্দের মানুষদের থেকে দূরে রাখুন নিজেকে। তাদের নেগেটিভ কথাবর্তায় অআপনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হতে পারেন। তাই তাদের এড়িয়ে চলুন। কখনও সামনে পড়ে গেলেও চুপ করে থাকুন। কোন কথার জবাব না দিয়ে সেখান থেকে দ্রুত কেটে পড়ুন।

নিজের যত্ন নিন

অনেকে ডিভোর্সের পর নিজেকে অবহেলায় রেখে দেয়। এটা মোটেও ঠিক নয়। মনে রাখবেন, যে কোনও কিছুর আগে দরকার নিজেকে ভালো রাখা। নিজের শরীর ও মনের যত্ন নিন। খাওয়া-দাওয়া ঠিক রাখুন। নিয়ম করেই সব কাজ করুন। ঘুম ঠিক রাখুন।

নতুন সম্পর্কে জড়াবেন না

অনেকেই পুরোনো ব্যথা ভুলতে নতুন সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এতে হিতে বিপরীতই হয়। অন্যজনকে সময় দিতে সাময়িক ভালো লাগতে পারে। কিন্তু পুরোনো সম্পর্কের জেরে নতুন সম্পর্কেও কিছুদিন পর ঝামেলা হতে পারে। তাই এখনই নয়। সময় আছে। নতুন সম্পর্কে জড়ানোর আগে কিছু বিষয়ে ভেবে নিন। নিজেকে একটু গুছিয়ে নিন।

আরও পড়ুন